বিশ্বসেরা হয়ে উঠেছে ‘মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর’

0

ওমানের আকাশপথের প্রধান প্রবেশদ্ধার মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের (IATA: MCT, ICAO: OOMS) যাত্রী ও বিমান চলাচলের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। ২০১৮ সালে নতুন প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল চালু হওয়ার পর থেকে এ ধারা অব্যাহত আছে এবং এর মাধ্যমে ধীরে ধীরে বিশ্বসেরা হয়ে উঠেছে মাস্কাট বিমানবন্দর।

ওমানের ন্যাশনাল সেন্টার ফর স্ট্যাটিস্টিকস অ্যান্ড ইনফরমেশন অনুসারে, মাস্কাট বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক এবং অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের সংখ্যা ১১৪.৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

২০২২ সালের জুলাইয়ের শেষ নাগাদ ফ্লাইটের সংখ্যা ৩৪ হাজার ৫৫৬ টিতে পৌঁছেছিল। এ সময়ে ৪২ লাখ ৫১ হাজার ১৭৩ জন যাত্রী বিমানবন্দরটি ব্যবহার করেছিলেন। গত বছর ১৬ হাজার ৮৪টি ফ্লাইট চলাচল এবং ১৬ লাখ ৪৭ হাজার ৭২৪ যাত্রী জন যাত্রী ভ্রমণ করে।

Travelion – Mobile

ওমান প্রবাসের সব খবর জানতে, এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

ওমানে সালতানাতে বিমানবন্দরের মাধ্যমে অভ্যন্তরীণ যাত্রীর সংখ্যা জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত ১৮৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪৯ লাখ ৭ হাজার ৫৯৯ জনের রেকর্ড করেছে, যেখানে বহির্গামী যাত্রীর সংখ্যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১২৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

Muscat International Airport
Muscat International Airport

ওমান বিমানবন্দর, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ, ঐতিহ্য ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং রয়্যাল ওমান পুলিশের সহযোগিতায়, এয়ারলাইনস বা ভ্রমণ সংস্থাগুলিকে প্রণোদনার একটি সিরিজ অফার করছে।

২০১৯-এ সালে ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল অ্যাওয়ার্ডসের জরীপে ওমান বিমানবন্দরকে’ সেরা বিমানবন্দর অপারেটর’ পুরস্কৃত করা হয়। এ ছাড়া মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর মধ্যপ্রাচ্যে গ্রাহক পরিষেবার অভিজ্ঞতায় সবচেয়ে উন্নত বিমানবন্দরের জন্য বিমানবন্দর কাউন্সিল ইন্টারন্যাশনাল থেকে পুরস্কার পেয়েছে।

Muscat International Airport
Muscat International Airport

২০২০ এর শুরুতে, মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অপারেটিং এয়ারলাইন্সের সংখ্যা ছিল ৩২টি। এই বৃদ্ধির অন্যতম কারণ ছিল জাতীয় বাহক, ওমান এয়ার, এবং বাজেট এয়ারলাইন, সালামএয়ার, মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে পূর্ব ও পশ্চিমের সংযোগকারী ফ্লাইট স্থানান্তরের কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টা।

আরও পড়তে পারেন :
ওমানে ভ্রমণকারী ৯৫৯% বেড়েছে
বিশ্বকাপ ভক্তদের বিনামূল্যে ভিসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে ওমান
বিনা ভিসায় ওমান প্রবেশের সুযোগ জিসিসি দেশের প্রবাসীদের

২০১৮ সালে নতুন টার্মিনাল ও রানওয়ের চালুর মাধ্যমে বিমানবন্দরের ধারণক্ষমতা বছরে ২০ মিলিয়ন যাত্রীতে উঠে আসে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপে পরিবর্ধনের মাধ্যমে বিমানবন্দরের ক্ষমতা যথাক্রমে ২৪ এবং ৪৮ মিলিয়ন বার্ষিক যাত্রী বৃদ্ধি পাবে। নতুন রানওয়েএয়ারবাস A380s এবং বোয়িং 747s এর মতো বড় উড়োজাহাজ পরিচালনা করতে সক্ষম।

সুবিধা, আরাম, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, কেনাকাটা, খাদ্য ও পানীয়, কর্মীদের পরিষেবা এবং নিরাপত্তা/অভিবাসনের জন্য মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর তারকা বিমানবন্দর হিসাবে প্রত্যয়িত করেছে এয়ারলাইন এবং বিমানবন্দর পর্যালোচনা ও জরীপকারী সংস্থা যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক স্কাইট্র্যাক্স।

মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান
মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান

স্কাইট্র্যাক্সের মুল্যায়ন, “মাস্কাট বিমানবন্দরটি ওমানের সালতানাতে প্রস্থান এবং আগমন পয়েন্ট ব্যবহার করা সহজ, এবং এটি বিপুল সংখ্যক গ্রাহকদের স্থানান্তরও করে। নতুন টার্মিনালটি চমৎকার সাজসজ্জা এবং আলোর মান, মানসম্পন্ন ট্রানজিট লাউঞ্জ এবং বসার জায়গা এবং টার্মিনালের বাইরে এবং অভ্যন্তরীণ পাবলিক এলাকায় অলঙ্কৃত ল্যান্ডস্কেপিংসহ একটি উচ্চ স্পেসিফিকেশনে ডিজাইন করা হয়েছে। গ্রাহকরা চেক-ইন এলাকায় পিক টাইম ভিড় খুঁজে পেতে পারেন, এবং স্থানান্তর চ্যানেলটি বিকেল ও সন্ধ্যায় ব্যস্ত হতে পারে, তবে এটি প্রায়শই দ্রুত গতিশীল হয়।”

ওমান প্রবাসের সব খবর জানতে, এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

মাস্কাট বিমানবন্দরটি পরবর্তী পর্যায়ে ৫৬ মিলিয়নেরও বেশি যাত্রীদের ওমানের সালতানাতে এবং সেখান থেকে ভবিষ্যতের ভ্রমণের চলাচলের ব্যবস্থা করার জন্য কনফিগার করা হয়েছে, যা স্বাভাবিকভাবেই ১০৩টি দেশের নাগরিকদের ভিসা-মুক্ত সুবিধাসহ বেশ কিছু প্রণোদনাসহ থাকবে।

মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান
মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান

১৯৭৩ সালের ২৩ শে ডিসেম্বর সিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নামে যাত্রা শুরু করে ওমানের প্রধান বিমানবন্দরটি। ২০০৮ সালে এটিকে মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পরিবর্তিত করা হয়। রাজধানীর কেন্দ্রস্থল থেকে ৩২ কিমি দূরে সিব এলাকায় অবস্থিত বিমানবন্দরটি পতাকাবাহী ওমান এয়ার এবং ওমানের প্রথম বাজেট এয়ারলাইন সালাম এয়ারের হাব হিসেবে কাজ করে এবং বিভিন্ন আঞ্চলিক গন্তব্যে ফ্লাইট এবং এশিয়া, আফ্রিকা এবং ইউরোপে কিছু আন্তঃমহাদেশীয় পরিষেবার বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন