বিশ্বের শীর্ষ তালিকায় মাসকট ও সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

0

ভিশন ২০২০ অর্জনে সাফল্যের পরিচয় দিয়েছে ওমানের বিমানবন্দরগুলো। এয়ারপোর্ট কাউন্সিল ইন্টারন্যাশনাল (এসিআই)-এর ঘোষণা অনুযায়ী, দেশটির মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ২০১৯ এর সেরা বিমানবন্দরের তালিকায় ৭ম স্থান দখল করে নিয়েছে। বিশ্বব্যাপী বিমানবন্দরগুলোর বাৎসরিক ১৫-২৫ মিলিয়ন যাত্রী ক্যাটাগরিতে তারা এই অবস্থান অর্জন করে।

অন্যদিকে এসিআইয়ের জরিপের বার্ষিক ২ মিলিয়ন যাত্রী ক্যাটাগরিতে নিজেদের অবস্থান আরো উন্নত করে ৪র্থ স্থান অর্জন করেছে সালালাহ বিমানবন্দর।

দেশটির প্রয়াত সুলতান কাবুস আল সাইদ-এর নবজাগরণের আলো সকল ক্ষেত্রে নিশ্চিতের লক্ষ্যে ২০১৫ সালে বিমানবন্দরগুলোকে বিশ্বের প্রথম সারির বিমানবন্দরের তালিকায় তুলে আনার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেছিল সরকার। এর ধারাবাহিকতায় ২০২০ সালের মধ্যে বিশ্বের উন্নত ২০টি বিমানবন্দরের তালিকায় নিজেদের নাম লেখাতে তারা একটি সুষ্পষ্ট কৌশল গ্রহণ করে।

সেই বছর ওমানের বিমানবন্দরগুলো এসিআইয়ের এয়ারপোর্ট সাভিস কোয়ালিটি (এএসকিউ) কর্মসূচি গ্রহণ করে, যার ভিত্তিতে নিজেদের মাসকাট ও সালালাহ বিমানবন্দরের সেবার মান যাচাই করা হয়। এতে তারা নিজেদের ঘাটতি দূর করে প্রতিবছর সেবার মান নিশ্চিতে আরো তৎপর হয়।

এয়ারপোর্ট সার্ভিস কোয়ালিটি (এএসকিউ) হল বিমানবন্দরের যাত্রীসেবার জন্য এসিআইয়ের বিশ্বব্যাপী পরিচিত, নেতৃস্থানীয় এবং স্বীকৃত একটি মান নির্ধারণী কর্মসূচী। এই কর্মসূচি ৩৪ টি সূচকের ভিত্তিতে জরিপ করে যাত্রীদের সন্তুষ্টি মূল্যায়ন করে। এর মধ্যে রয়েছে যাত্রীসেবার বিভিন্ন পর্যায় যেমন টার্মিনালে প্রবেশাধিকার, চেক-ইন অভিজ্ঞতা, পাসপোর্ট নিয়ন্ত্রণ, নিরাপত্তা, সর্বোপরি বিমানবন্দরের সুবিধা ও পরিবেশ। এই জরিপের আওতায় যাত্রীদের বিমানবন্দরের পরিবেশ, পরিচ্ছন্নতা এবং সেবা লাভের অভিজ্ঞতাসহ নানা বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়।

সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর
সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

২০১৬ সাল থেকে ওমানের বিমানবন্দরগগুলোর উন্নয়নের যাত্রার শুরুর সময় মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর তালিকার ৭১ নম্বরে ছিল। ২০১৮ তে নতুন টার্মিনাল ভবন চালুর মধ্য দিয়ে তারা সেবার মাত্রাকে নতুন মাত্রায় নিয়ে যায়। ২০১৯ এ এসে এসিআইয়ের তালিকায় ৭ম হিসেবে স্বীকৃতি পেয়ে যায় নিজেদের সাফল্যের স্বীকৃতি পায়।

২০১৫ সালে ওমানের সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নতুন টার্মিনাল চালুর মধ্য দিয়ে এসিআইয়ের ২ মিলিয়ন বাৎসরিক যাত্রী ক্যাটাগরিতে নবম স্থানে জায়গা করে নিয়েছিল। সেই থেকে প্রতি বছর বিমানবন্দরটি নিজেদের সেবার মানকে আরো উন্নত করতে সচেষ্ট হয়। শেষমেশ ২০১৯ এ বিমানবন্দরটি নিজেদের অবস্থানকে চতুর্থ স্থানে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়।

ওমান বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমানবন্দরের সকল পক্ষের নিরলস ও অক্লান্ত প্রচেষ্টায় নিজেদের ভিশন ও পরিকল্পনার সফলতা দেখা গেছে। তাদের সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টা না থাকলে এ লক্ষ্যে পৌছুনো সম্ভব হতোনা।

এভিয়েশন সেক্টরে বৈশ্বিক নানা চ্যালেঞ্জের মধ্যেও মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং সালালাহ বিমানবন্দরের এই সফল র‌্যার্ঙ্কিং এক ধরনের দৃষ্টান্ত। এর ফলে এই বিমানবন্দরগুলো ভবিষ্যতে বিনিয়োগের জন্য প্রণোদনা নিশ্চিত করেছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...