চীনে ফ্লাইট বন্ধ করল ভারতের এয়ার ইন্ডিয়া ও ইন্ডিগো

0

চীনে করোনাভাইরাস মহামারির আকার নেওয়ায় বেঙ্গালোর-হংকং রুটে উড়ান আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল বেসরকারি বিমান সংস্থা ইন্ডিগো । আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এই রুটে উড়ান বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। পাশাপাশি ১ থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ইন্ডিগোর দিল্লি এবং দেংদুর মধ্যে উড়ান পরিষেবাও বন্ধ থাকবে।

একই ভাবে করোনাভাইরাসের আতঙ্কে ৩১ জানুয়ারি থেকে দিল্লি-সাংহাই রুটে উড়ান পরিষেবা স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ার ইন্ডিয়াও। আপাতত ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই রুটে তারা কোনও উড়ান চালাবে না বলে জানিয়েছে।

যদিও কলকাতা এবং চিনের শহর গুয়াংঝুর মধ্যে আপাতত উড়ান পরিষেবা বন্ধ না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্ডিগো। তবে পরিস্থিতির ওপরে সর্বক্ষণ নজর রাখা হচ্ছে বলে এই বেসরকারি বিমান সংস্থাটি জানিয়েছে। একইসঙ্গে তারা এও জানিয়েছে, এই উড়ানের কোনও কর্মী চিনে থাকবেন না। ফিরতি বিমানেই তাঁরা দেশে ফিরে আসবেন।

এ দিকে, থাইল্যান্ড এবং সিঙ্গাপুর-সহ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলির সঙ্গে সংযোগকারী ইন্ডিগোর উড়ানের কর্মীদের জন্য বিশেষ স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করেছে কর্তৃপক্ষ। তাঁরা যতক্ষণ গ্রাউন্ডে থাকবেন ততক্ষণ এন ৯৫ ( N95) মাস্ক পরে থাকতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে খাওয়াদাওয়ার ক্ষেত্রেও তাঁদের বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

চিনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ইতোমধ্যে বেড়ে ১৩২ দাঁড়িয়েছে। এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬,০০০। ২৪ ঘন্টার মধ্যে ৩১টি প্রদেশ থেকে নতুন করে ১৪৫৯জন আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে। বেজিংয়ে ৯১ জনের রক্তে পাওয়া গিয়েছে করোনাভাইরাস। সাংহাইতে সংখ্যাটা ৮০।

এই নতুন আতঙ্ক ক্রমে জাঁকিয়ে বসছে বিশ্বের নানা প্রান্তে। ১৭ টি দেশে অন্তত ৬০ জন এমন রোগীর হদিস মিলেছে যাঁদের প্রত্যেকের দেহেই নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিশ্চিত। আমেরিকা, ম্যাকাও, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান প্রমুখ দেশের পাশাপাশি জার্মানি ও শ্রীলঙ্কাতেও আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। বার্লিন প্রশাসনের দাবি, আক্রান্ত ব্যক্তি চিনে যাননি। তবে এক জন চিনা বাসিন্দার সঙ্গে গত সপ্তাহে দেখা করেছিলেন। থাইল্যান্ডেও মঙ্গলবার নতুন করে ৬ জন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...