চাঁদের চারপাশে বেড়াতে যাচ্ছেন একঝাঁক শিল্পী

0

একজন ডিজে, কে-পপ র‌্যাপার এবং একজন স্পেস ইউটিউবার চাঁদের চারপাশে বেড়াতে যাচ্ছেন। একজন জাপানি ধনকুবের এক ব্যক্তিগত স্পেসএক্স ফ্লাইটের জন্য এদের বাছাই করেছেন। ফ্লাইটটি আগামী বছর উড়বে বলে ঠিক করা হয়েছে এবং ১৯৭২ সালের পর এটাই হবে মানুষের প্রথম চন্দ্র ভ্রমণ। খবর বিবিসির।

গত বছর বিশ্বব্যাপী সৃজনশীল ব্যক্তিত্বদের খুঁজে বের করার এক অনুসন্ধান শেষ হওয়ার পর বিলিওনেয়ার ইউসাকু মায়েজাওয়া শুক্রবার এই ফ্লাইটের ক্রুদের পরিচয় প্রকাশ করেছেন।আমেরিকান ডিজে স্টিভ আওকি এবং টপ নামে এক কোরিয়ান তারকা বাছাইকৃতদের মধ্যে সবচেয়ে সুপরিচিত।

এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

Travelion – Mobile

এই ফ্লাই-বাই ভ্রমণে মহাকাশযানটি চাঁদের পিঠের ২০০ কিলোমিটার (১২৪ মাইল)-এর মধ্যে এসে চারপাশে বৃত্তাকারে ঘুরবে। এই ভ্রমণের মোট সময় লাগবে আট দিন। তবে, মার্কিন নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ ইলন মাস্কের স্পেসএক্স কোম্পানির স্টারশিপ রকেটের ফ্লাইটে এই ক্রুদের ভ্রমণের ব্যাপারে এখনও কোন অনুমতি দেয়নি।

মহাকাশযানটি এমনকি পৃথিবীর কক্ষপথ ভ্রমণেরও কোন অনুমোদন জোগাড় করতে পারেনি। ২০২১ সালের মে মাসে পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের পর থেকে গত ১৮ মাস ধরে এটিকে টেক্সাসে বসিয়ে রাখা হয়েছে।

ডিয়ার মুন মিশন
ডিয়ার মুন মিশন

কিন্তু মায়েজাওয়া তার ভিডিওতে এই বিলম্বের কোন কারণ উল্লেখ করেননি। মিশনটির নাম তিনি দিয়েছেন ‘ডিয়ারমুন।’ ভিডিওর শুরুর দৃশ্যে দেখা যাচ্ছে, মায়েজাওয়া জাপানে একটি বাগান থেকে চাঁদের দিকে তাকিয়ে আছেন। তারপর ভিডিও’র প্রথম ক্রু সদস্য হিসেবে দেখা যায় ডিজে আওকিকে তার একটি শো’তে।

“এই সুযোগটি আমি মিস করতে চাই না। আমার অন্তরাত্মা এটি কামনা করছে,” বিলবোর্ড-চার্টিং শিল্পী আওকিকে ঐ ভিডিওতে বলতে দেখা যায়।

পরবর্তী যাত্রী হিসেবে যাদের নাম প্রকাশ করা হয়েছে, তিনি হলেন ইউটিউবার টিম ডড, যিনি ‘এভরিডে অ্যাস্ট্রোনট’ নামে সুপরিচিত। স্পেস ফ্লাইট এবং অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের ওপর শিক্ষামূলক ভিডিওগুলির জন্য অনলাইনে তার ১.৪ মিলিয়ন অনুসারী রয়েছে৷

ডিয়ার মুন মিশনের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, টপ (চোই সেউং হিউন): একজন কে-পপ র‍্যাপার এবং বয়ব্যান্ড বিগ ব্যাং (দক্ষিণ কোরিয়া) এর প্রাক্তন লিড। নৃত্যশিল্পী এবং কোরিওগ্রাফার ইয়েমি এডি (চেক প্রজাতন্ত্র), ফটোগ্রাফার রিয়ানন অ্যাডাম (আয়ারল্যান্ড), বন্যপ্রাণী ফটোগ্রাফার করিম ইলিয়া (ইউকে), চলচ্চিত্র নির্মাতা ব্রেন্ডন হল (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র), অভিনেতা দেব যোশি (ভারত)।

এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

এ ছাড়া ইউএস অলিম্পিক স্নোবোর্ডার ক্যাটলিন ফ্যারিংটন এবং জাপানি নৃত্যশিল্পী মিইউ’কে ব্যাক-আপ হিসাবে রাখা হয়েছে। “আমি আশা করছি পৃথিবী ছেড়ে চাঁদে ভ্রমণ এবং ফিরে আসার সাথে যে দায়িত্ব আসে তা প্রত্যেক যাত্রীই স্বীকার করবেন,” মি. মায়েজাওয়া বলছেন।

“এই অভিজ্ঞতা থেকে তারা অনেক কিছু অর্জন করবেন এবং আমি আশা করি যে এই গ্রহ এবং মানবতার কল্যাণে অবদান রাখতে তারা এই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাবেন।”

মায়েজাওয়ার বাণিজ্যিক সাম্রাজ্য তৈরি হয়েছে অনলাইন ফ্যাশন খুচরা বিক্রেতা জোজো’র মাধ্যমে। বাণিজ্যিক মহাকাশ ভ্রমণে তিনি বিশেষভাবে জড়িয়ে পড়েছেন। গত বছর ১২ দিনের জন্য তিনি একটি রাশিয়ান রকেটে চড়ে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে গিয়েছিলেন।

এবারের এই মহাকাশ ভ্রমণের জন্য মি. মায়েজাওয়া কত অর্থ দিতে রাজি হয়েছেন তা প্রকাশ করা হয়নি, তবে ইলন মাস্কের বর্ণনা অনুযায়ী, এটা ছিল “অনেক টাকা।”

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন