কুয়ালালামপুর-ঢাকা রুটে সপ্তাহে দুটি ফ্লাইট মালিন্দো এয়ারের

0

ঢাকা-কুয়ালালামপুর রুটে সপ্তাহে দুটি ফ্লাইট পরিচালনা করছে মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ার গ্রুপের মালিকানাধীন বিমান সংস্থা ‘মালিন্দো এয়ার’। মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে রবিবার ও মঙ্গলবার এবং ঢাকা শাহ জালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর থেকে সপ্তাহের সোমবার ও বুধবার যাত্রী পরিবহন করছে বিমান সংস্থাটি।

মালয়েশিয়া থেকে আসার পথে ভালো যাত্রী পেলেও মূলত মালয়েশিয়াতে কভিড-১৯ সংক্রান্ত কড়াকড়ির কারণে ঢাকা থেকে মালয়েশিয়া রুটে কেবল নির্ধারিত যাত্রী মিলছে এই রুটে। তবে কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ট্রানজিট যাত্রী মিলছে ভালো।

জানতে চাইলে মালিন্দো এয়ারের হেড অব কমার্শিয়াল বিপ্লব চক্রবর্তী আকাশযাত্রাকে বলেন, ২১ জুলাই ঢাকা থেকে আমরা যাত্রী পরিবহন শুরু করি। তখনকার চেয়ে এখন ভালো যাত্রী সাড়া মিলছে। মালয়েশিয়া থেকে প্রচুর যাত্রী বাংলাদেশে আসছে কিন্তু বাংলাদেশ থেকে সেরকম সাড়া আমরা এখনো পাইনি। আশা করছি মালয়েশিয়া সরকার কভিড-১৯ নিয়ে শিথিল করলে যাত্রী মিলবে প্রচুর।

তিনি বলছেন, কুয়ালালামপুর থেকে সিঙ্গাপুর, জাকার্তা, কাঠমান্ডু এবং দক্ষিন কোরিয়াতে আমরা ভালো সংখ্যক যাত্রী পাচ্ছি। কিন্তু মালয়েশিয়াতে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন থাকা বাধ্যতামূলক করায় এখন পর্যন্ত ভ্রমন যাত্রী মিলছে না।

উল্লেখ্য, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ার গ্রুপের মালিকানাধীন বিমান সংস্থা ‘মালিন্দো এয়ার’ ২০১৩ সালে যাত্রী পরিবহন শুরু করে। বর্তমানে বিমান সংস্থাটি ৩৭টি উড়োজাহাজ দিয়ে বিশ্বের ৬৯টি আর্ন্তজাতিক গন্তব্যে যাত্রী পরিবহন করছে। কুয়ালালামপুর-ঢাকা রুটে বিমান সংস্থাটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং বোয়িং ৭৩৭-৯০০ সুপরিসর আরামদায়ক উড়োজাহাজ দিয়ে যাত্রী পরিবহন করছে। সাশ্রয়ে ভ্রমনের জন্য এই রুটে বাংলাদেশিদের কাছে বেশ জনপ্রিয় মালিন্দো এয়ার।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।