ওমানে প্রদেশগুলোতে চলাচল সীমাবদ্ধ, বসেছে চেক পোস্ট

0

করোনাভাইরাস প্রাদূর্ভাব ছড়িয়ে যাওয়া রোধে বুধবার (১ এপ্রিল) থেকে ওমানের প্রদেশগুলো মধ্যে নাগরিক ও প্রবাসীদের চলাচল সীমাবদ্ধ করা হচ্ছে।

মহামারী মোকাবিলার জন্য সুপ্রিম কমিটির নেওয়া সিদ্ধান্তের আলােকে এই উদ্যােগ নেওয়া হয়েছে, যা বাস্তবায়ন করবে সুলতানের সশস্ত্র বাহিনী (এসএএফ) এবং রয়্যাল ওমান পুলিশ (আরওপি)।

এ লক্ষ্যে সুলতানাতের সকল প্রদেশের প্রবেশ ও বহির্গমন পথে নাগরিক এবং প্রবাসীদের চলাচল নিয়ন্ত্রণে চেকপয়েন্ট স্থাপন করেছে এসএএফ এবং আরওপি।

অনলাইনে বিবৃতিতে সশস্ত্র বাহিনী বলেছে, “সুলতানের সশস্ত্র বাহিনী এবং রয়্যাল ওমান পুলিশ সুলতানাতের গভর্নরেটগুলোর মধ্যে চলাচলের বিধান সম্পর্কিত পদ্ধতি বাস্তবায়িত করবে, সকল প্রদেশের প্রবেশ পথে নাগরিক এবং প্রবাসীদের চলাচল নিয়ন্ত্রণের জন্য চেক পয়েন্টগুলি সক্রিয় করার মাধ্যমে।

এই পদক্ষেপে সুলতানাতের সকল প্রদেশের মধ্যে নাগরিক এবং প্রবাসীদের জন্য চলাচল সীমাবদ্ধ থাকবে। তবে বেশ কিছু খাতকে চলাচল সীমাবদ্ধতা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে, অর্থ্যাৎ চলচলে কোন বাধা থাকবে না। এগুলো হল;

১. সরকারী ও বেসরকারী খাতের সেই সব কর্মচারি, যাদের কাজের প্রকৃতির জন্য বা কাজ সম্পন্ন করার জন্য উপস্থিতির প্রয়োজনীতা বিভাগীয় প্রধানগণ নির্ধারণ করবেন।

২. অ্যাম্বুলেন্স এবং জরুরি যানবাহন।

৩. সেনাবাহিনী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর যানবাহন।

৪. খাদ্যদ্রব্য এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পরিবহনকারী যানবাহন।

৫. বাণিজ্যিক ও নির্মাণ সামগ্রী, পেট্রোলিয়াম ডেরাইভেটিভস এবং সরকারী ও বেসরকারী খাতের দ্বারা ব্যবহৃত অন্যান্য সামগ্রী পরিবহনের যানবাহন।

৬. চেকপয়েন্টের কর্মীদের মূল্যায়নের ভিত্তিতে চলাচলের প্রয়োজন থাকা নাগরিক এবং প্রবাসী ।

চলাচলে সুযোগ পাওয়া এই ক্যাটগরির নাগরিক এবং প্রবাসীদের অবশ্যই তাদের সিভিল এবং ওয়ার্ক পারমিট কার্ড সাথে রাখতে হবে।

সুলতানের সশস্ত্র বাহিনী জরুরী প্রয়োজনের নাগরিক ও প্রবাসীদের প্রয়োজন ছাড়া বাইরে না গিয়ে বাড়ির থাকার গুরুত্বের উপর জোর দিয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...