লেবাননে থেকে বিমানে ফিরেছেন ৪১০ বাংলাদেশি

0

লেবানন থেকে দেশে ফিরেছেন ৪১০ জন প্রবাসী বাংলাদেশি। এরা সবাই বাংলাদেশ দূতাবাসের স্বেছায় স্বদেশ প্রত্যাবর্তণ কর্মসূচির আওতায় নিবন্ধিত কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশি কর্মী ।

রবিবার (১৭ আগস্ট) বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে ফিরেন ৪১০ জন বাংলাদেশি কর্মী। করোনা পরিস্থিতির কারণে আটকে পড়া কাগজপত্রবিহীন বা অবৈধ হয়ে যাওয়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে বৈরুত দূতাবাসের অনুরোধে বাংলাদেশ বিমান এই প্রথম লেবাননে তাদের বিশেষ ফ্লাইট পরিচালন করে।

সোমবার ভোরে বিজি-৪১৮২ ফ্লাইটটি বৈরুতের রফিক হারিরি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৪১০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে উড়াল দেয়। এসময় বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ দূতাবাসের কর্মকর্তারা বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ বিমানে ফিরতে পেরে বাংলাদেশিরা বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান।

বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ফ্লাইটটি অবতরণ করে। বিমানবন্দরের হেলথ ডেস্ক সূত্র জানায়, ৪১০ জনের কভিড-১৯ সংক্রমণ নেই মর্মে সার্টিফিকেট থাকায় সকলকেই হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

আগামী ১৯ ও ২৩ আগষ্ট বাংলাদেশ বিমান লেবাননে আরো ২টি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালরা করবে বলে দূতাবাস জানিয়েছে।

লেবাননে গত সেপ্টেম্বর মাস থেকে অর্থনৈতিক মন্দা শুরু হলে বাংলাদেশ দূতাবাসের বিশেষ কর্মসূচীর আওতায় প্রায় সাড়ে ৭ হাজার বাংলাদেশি নিজ দেশে ফেরত যাওয়ার জন্য স্বেচ্ছায় নাম নিবন্ধন করে।করোনা পরিস্থিতির কারনে বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় দীর্ঘদিন যাবত নিবন্ধিত বাংলাদেশিরা বাংলাদেশে ফিরতে পারছিল না।

বৈরুতস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে জুলাই মাসে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোঃ জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান পিএসসি যোদানের পরেই বাংলাদেশ সরকার ও বিমান সংস্থার সাথে আলোচনার ফলস্বরুপ বাংলাদেশ সরকার আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে নেওয়ার কার্যক্রম শুরু করে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।