দক্ষিণ কোরিয়ায় হৃদরোগে বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু

0

দক্ষিণ কোরিয়ার হৃদরোগে এক বাংলাদেশি রেমিট্যান্সযোদ্ধা মারা গেছেন। তার নাম সিয়াম। তার দেশের বাড়ি খুলনায় । বাবা মরহুম ইউসুফ আজাদ।

শুক্রবার (২২ মে) রাত দশটায় হোসাংসি ফারান বেক্তোরি এলাকায় হাসাপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। সিয়ামের কোম্পানির সহকর্মী আশরাফুল ইসলাম তার মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেন।

সিয়ামের মামা আনোয়ার হোসেন জানায়, “আজ সকালে আমার ভাগিনা ফোন দিয়ে শ্বাস কষ্ট জনিত সমস্যার কথা আমাকে জানায়। আমার পরামর্শে সে হাসপাতালেগিয়ে করোনা পরীক্ষা করে। ফলাফল নেগেটিভ আসায় সে বাসায় ফিরে আসে ।”

তিনি জানান সন্ধ্যায় আবার শ্বাস কষ্ট হলে কোম্পানির সহকর্মীরা সিয়ামকে এ্যাম্বুলেন্স করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে। কিন্তু যাওয়ার পথেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুের কোলে ঢলে পড়ে মাত্র ২৩ বছর বয়সী রেমিট্যান্সযোদ্দা সিয়াম। তার মরদেহ সুওনের একটি হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

ফারানের ব্যবসায়ী আলমগীর সোলায়মান বলেন,”সিয়াম অনেক দিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছে । আজ রাত দশটায় হাসপাতালে যাওয়ার পথে হার্ট এ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করেন। সে খুব বিনয়ী ছেলে ছিল।”

সিয়াম তার বাবাকে হারিয়েছেন ১১ বছর বয়সে। মা-মামাদের কোলেই বেড়ে ওঠা তার ।

সিয়ামের অকাল মৃত্যুতে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী বাংলাদেশি ও পরিবারে মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম গভীর শোক প্রকাশ করেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

রাষ্ট্রদূত সিয়ামের মরদেহ দেশে পাঠানোর জন্য দূতাবাসের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...