জর্ডানের পোশাক খাতে বাংলাদেশি পুরুষকর্মী নিয়োগের আহ্বান

0
Travelion – Mobile

জর্ডানের পোশাক খাতে বাংলাদেশি নারী কর্মীর পাশাপাশি দক্ষ পুরুষ কর্মী নিয়োগের বিষয়টি বিবেচনা করতে দেশটির সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। বর্তমানে জর্ডানের গার্মেন্টস সেক্টরে বাংলাদেশ থেকে শুধু নারী কর্মী নিয়োগ দেওয়া হয়।

রোববার জর্ডানে দেশটির শ্রমমন্ত্রী নায়েফ ইস্তিতির সঙ্গে বৈঠকের সময় মন্ত্রী ইমরান আহমেদ এ আহ্বান জানান। এছাড়া, তিনি জর্ডানের কৃষি ও পর্যটন খাতে বাংলাদেশি শ্রমিকদের অংশগ্রহণের সুযোগদান করার বিষয়েও আলোচনা করেন।

ইমরান আহমদ বলেন,’দক্ষ কর্মী পাঠিয়ে জর্ডানের সঙ্গে উন্নয়ন অংশীদারিত্ব জোরদার করতে আগ্রহী বাংলাদেশ।’ বর্তমানে প্রায় ৭০ হাজার বাংলাদেশি অভিবাসী কর্মী জর্ডানের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সরাসরি অবদান রাখছেন বলে জানান তিনি।

তিনি মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের সবুজায়নে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে জর্ডানের কৃষিখাতের উন্নয়নেও সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানোর বিষয়টি বিবেচনা করার অনুরোধ করেন। সেই সাথে তিনি জর্ডানের ঐতিহাসিক ও ধর্মীয় স্থান সমূহ দর্শনের জন্য বাংলাদেশের প্রকৃত ভ্রমন পিপাসু নাগরিকদের জন্য বিদ্যমান ভ্রমন বাঁধা দূর করার বিষয়ে জোর দেন। তিনি বাংলাদেশী টুরিস্টদের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার অনুরোধ জানান।

amar lab – mobile

জর্ডানের শ্রমমন্ত্রী নায়েফ ইস্তিতি বলেন, বাংলাদেশ ও জর্ডান উভয় দেশই তার স্বল্প সম্পদ ও সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও বিশ্বের কাছে তাদের স্বতন্ত্র পরিচয় তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে। উভয় দেশই নিজ ভূখণ্ডে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়েছে। এছাড়া ফিলিস্তিন ইস্যুতে বাংলাদেশ সব সময়ই উচ্চকিত ভূমিকা পালন করেছে।

তিনি আরও বলেন, জর্ডানের পোশাক খাতের মোট শ্রমিকের অর্ধেকের বেশিই বাংলাদেশী এবং তারা নিজস্ব দক্ষতা গুনেই বাংলাদেশ ও জর্ডানের অর্থনীতিতে অবদান রাখছে।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক বিকাশে সঠিক নেতৃত্বের প্রশংসা করে নায়েফ ইস্তিতি বলেন, যুগপযোগী পদক্ষেপের ফলে বাংলাদেশ তার উন্নয়ন লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বেরও তিনি ভূয়সী প্রশংসা করেন।

শ্রম মন্ত্রী বাংলাদেশের সাথে অর্থনৈতিক সহযোগিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জর্ডান আরও ঘনিষ্ঠ ভাবে কাজ করতে পারে বলে মতামত ব্যক্ত করেন। এই সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়ে উভয় দেশের কূটনৈতিক পর্যায়ে আরও ঘনিষ্ঠ সংলাপ বিনিময়ের উপর জোর দেন। এছাড়া বাণিজ্যিক প্রতিনিধি দলের সফর বিনিময় ও তাদের মধ্যে সংলাপ বৃদ্ধির বিষয়ে তিনি গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া তিনি জর্ডানের বৈধ প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি সকল ধরনের সহযোগিতা অব্যহত থাকবে বলেও অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া এবং জর্ডানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান, বোয়েসেল-এর এম.ডি (অতিরিক্ত সচিব) বিল্লাল হোসেনসহ বাংলাদেশ দূতাবাস ও জর্ডান শ্রম মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন