‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু, প্রবাসীরা যার গর্বিত অংশীদার’

0

স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সরওয়ার মাহমুদ বলেছেন, প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিটেন্সে সমৃদ্ধ হচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনীতি। বাঙালির জাতির গর্ব বহুদিনের প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু আগামী ২৫ জুন শুভ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। সম্পূর্ণ আমাদের নিজেদের অর্থে এই সেতু নির্মিত হয়েছে। প্রবাসী বাংলাদেশিরা যার গর্বিত অংশীদার।

আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে শুক্রবার (১০জুন) স্পেনের বাংলাদেশ দূতাবাসের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য সম্বলিত প্রায় ৪ মিনিটের একটি ভিডিও বার্তা পোস্ট করা হয়। সেখানে তিনি প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটি, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংবাদিক সংগঠনসহ সবার উদ্দেশে এই অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

ভিডিও বার্তায়, রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সরওয়ার মাহমুদ বলেন, ইউরোপ থেকে বাংলাদেশে রেমিটেন্স প্রেরণে স্পেন অন্যতম একটি দেশ। ২০২০-২১ অর্থ বছরে ৫৩.৪৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিটেন্স স্পেন থেকে বাংলাদেশে প্রেরিত হয় এবং সোর্স ক্যান্টি হিসেবে স্পেন ২৩ তম স্থান অধিকার করে। এই অর্থ বছরে অর্থ্যাৎ ২০২১-২২ বছরে মে মাস পর্যন্ত প্রবাসী আয় প্রেরণের পরিমাণ ৫৭.৫৭ মিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় স্পেন প্রবাসীদের প্রেরিত রেমিটেন্স পরিমাণ প্রতিবছর বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ জন্য তিনি সকল প্রবাসীদের আন্তরিক অভিনন্দন জানান।

Travelion – Mobile

বৈধভাবে দেশে রেমিটেন্স প্রেরণ করে দেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রায় অংশ নেয়ার আহবান জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক রেমিটেন্স প্রেরণে আর্থিক প্রনোদনার কথা উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশে প্রেরিত রেমিটেন্সের উপরে ২.৫ শতাংশ প্রনোদনা প্রদান করা হচ্ছে। যা ব্যাংকিং চ্যানেলে বৈধভাবে প্রেরিত উক্ত প্রনোদনা প্রযেজ্য হবে।

তিনি সকল প্রবাসীদেরকে বাংলাদেশে ব্যাংকিং চ্যানেলে বৈধভাবে প্রেরণ করে ২.৫ শতাংশ প্রনোদনা গ্রহণ করার জন্য আহবান জানান। বাংলাদেশে বৈধভাবে রেমিটেন্স প্রেরণে যে কোনো সমস্যায় দূতাবাস কর্তৃক অব্যাহতভাবে সহযোগীতা প্রদানের ও প্রতিশ্রুতি দেন।

স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিদের রেমিটেন্স প্রদানে উৎসাহ প্রদান করার জন্য তিনি দূতাবাসের শ্রম কল্যাণ ইউংয়ের সহযোগিতায় রেমিটেন্স পুরস্কার প্রদানের গোষণা দেন। গত জুলাই ২০২১ থেকে জুন ২০২২ পর্যন্ত ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে বাংলাদেশে সর্বাধিক রেমিটেন্স প্রেরণকারী ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এ বছর এই পুরুস্কার প্রদান করা হবে।

বাংলাদেশ দূতাবাস স্পেন সর্বদা প্রবাসীদের সেবাদানে অঙ্গীকারবদ্ধ উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, স্পেনে প্রায় ৫০ হাজার বাংলাদেশি রয়েছেন। তাদের সেবায় ইতিমধ্যে আমরা দূতাবাসের কনস্যুলার সেবাকে সহজতর করেছি। অধিকতর সচ্ছতা প্রদান ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে কার্ড ও ব্যাংক ট্রান্সফার এর মাধ্যমে কনস্যুলার ফ্রী সরাসরি দূতাবাসের একাউন্টে জমা নেয়ার ব্যাবস্থা গ্রহণ করেছি। বার্সেলোনাসহ অন্যান্য শহরে প্রবাসীদের জন্য কনস্যুলার সেবা প্রদান করছি। দূরবর্তী প্রবাসীদের জন্য ইতিমধ্যে ডাকযোগে সেবা প্রদান সার্ভিস চালু হয়েছে। যার ফলে দূরবর্তী থাকা প্রবাসীগণ দূতাবাসে না এসে সেবা গ্রহণ করতে পারছেন।

কনস্যুলার সেবা দেয়ার ক্ষেত্রে তিনি আরো উল্লেখ করেন, স্পেনে জন্মগ্রহনকৃত শিশুদের জন্য জন্মনিবন্দন প্রক্রিয়া অত্যন্ত সহজ করা হয়েছে। যে কেউ অনলাইনে আবেদন করে জন্ম সনদ পেতে পারেন। পাসপোর্ট সংশোধন, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ইত্যাদি প্রক্রিয়া সহজতর করার জন্য সংশ্লিস্ট মন্ত্রনালয়ে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছি এবং অচিরেই এই প্রক্রিয়া গুলো সহজতর হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন