স্পেনের রাজার কাছে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ

0

স্পেনের রাজা ষষ্ঠ ফিলিপের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে পরিচয়পত্র পেশ করেছেন দেশটিতে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) রাজধানী মাদ্রিদে রাজকীয় প্রাসাদে আড়ম্বরপূর্ণ পরিবেশে পরিচয়পত্র পেশ করেন সারওয়ার মাহমুদ। অনুষ্ঠানে স্পেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান এটিএম আব্দুর রউফ মন্ডল, কমার্শিয়াল কাউন্সেলর রেদোয়ান আহমেদ ও প্রথম সচিব (শ্রম) মুতাসিমুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে একান্ত বৈঠকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের রাজা ষষ্ঠ ফিলিপেকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা পৌঁছে দেন। স্পেনের রাজাও রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য কামনা করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

বৈঠকে রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরপরই বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া প্রথম সারির অন্যতম দেশ স্পেন উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে দ্রুতবেগে এগিয়ে যাচ্ছে, উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।

বাংলাদেশে অবস্থানরত মিয়ানমার থেকে আগত বাস্তুচ্যুত ১.১ মিলিয়ন রোহিঙ্গাদের দুর্দশার কথা ব্যক্ত করে রাষ্ট্রদূত রোহিঙ্গাদের স্বদেশ ভূমি মিয়ানমারে সম্মানজনক প্রত্যাবাসনে স্পেন সরকারের অব্যাহত ও কার্যকর সহযোগতা কামনা করেন।

বিদ্যমান চমৎকার বন্ধুত্বপূর্ণ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে সম্ভাবনার নতুন ক্ষেত্র চিহ্নিত করে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রদূত। এ লক্ষ্যে ফরেন অফিস কনসালটেশন, দ্বৈতকর পরিহার, দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ সম্প্রসারণ ও সংরক্ষণ এবং সাংস্কৃতিক বিনিময় চুক্তি সম্পাদনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

স্পেনে বাংলাদেশের রফতানি বৃদ্ধি ও বাংলাদেশে স্প্যানিশ বিনিয়োগ সম্প্রসারণের জন্য রাজার সহযোগিতাও কামনা করেন মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ। রানী সোফিয়ার বাংলাদেশে কয়েকবার ভ্রমণের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত রাজাকে বাংলাদেশ ভ্রমণের আমন্ত্রণ জানান।

স্পেনের রাজা ষষ্ঠ ফিলিপ সারওয়ার মাহমুদের সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনা করে তার দায়িত্ব পালনকালে স্পেন-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও বেগবান হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানের জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেন স্পেনের রাজা । একই সঙ্গে তিনি রোহিঙ্গাদের স্বদেশ প্রত্যাবাসনে স্পেন সরকারের অব্যাহত ও কার্যকর সহযোগিতা আশ্বাস দিয়েছেন।

তিনি রাজা দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যিক সর্ম্পকে সন্তুষ্টি জানিয়ে প্রত্যাশা করেন, আগামীতে বাণিজ্য যোগাযোগ আরও নিবিড়তর ও সম্প্রসারিত হবে ।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন