সৌদিপ্রবাসীরা কফিল পরিবর্তন ও অনুমতি ছাড়াই দেশ ত্যাগের সুযোগ পাচ্ছে

0

নিয়োগকর্তা বা কফিল পরিবর্তন এবং নিয়োগকারীর সম্মতি ছাড়াই প্রস্থান/পুনরায় প্রবেশ ভিসার সুযোগ পাচ্ছে সৌদি আরবের প্রবাসী কর্মীরা। দেশটির ‘শ্রম সম্পর্কিত সম্পর্ক উদ্যোগের’ অংশ হিসাবে এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

সৌদি আরবের মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় রিয়াদে এক সংবাদ সম্মেলনে এই নতুন সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছে।

২০২১ সালের মার্চ মাসে কার্যকর হওয়া নতুন সংস্কারগুলি প্রবাসী কর্মীদেরদের সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ এবং জাতীয় রূপান্তর কর্মসূচির সাথে সামঞ্জস্য করে অতিরিক্ত অধিকারের অনুমতি দেবে।

অধিকন্তু, মানব সম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় বলেছে যে, এই সমস্ত নতুন উদ্যোগ এখন নিয়োগকর্তার সম্মতি ছাড়াই স্বয়ংক্রিয়ভাবে অনুমোদিত হবে। স্মার্টফোন অ্যাপ্লিকেশন ‘আবশার’ এবং মন্ত্রণালয়ের বৈদ্যুতিন বা ইলেকট্রনিক ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে এই তিনটি পরিষেবা দেওয়াহ বে।

এই সংস্কারগুলি সৌদি আরবের শ্রমবাজারে বৃহত্তর প্রতিযোগিতা তৈরি করবে কারণ এটি কর্মচারীদের তাদের নিয়োগকর্তা পরিবর্তন করার অনুমতি দেবে এবং নিয়োগকারীদের সর্বোত্তম প্রতিভা আকৃষ্ট করার অনুমতি দেবে।

এই উদ্যোগে সুফল পবেন সৌদিতে বসবাসরত প্রায় ১ কোটি প্রবাসী শ্রমিক। দীর্ঘ সমালোচিত এই কর্মসংস্থান ব্যবস্থা বাতিলের পর কোনো ব্যক্তি নয়, প্রবাসীদের অভিভাবক হবে সেদেশের শ্রম মন্ত্রণালয়। বিলুপ্তি ঘটবে শ্রমিক নিয়োগে স্পন্সরশিপ প্রদানকারী মালিকদের অঘোষিত ‘দাস প্রথা’। স্বাধীনতা ভোগ করবেন শ্রমিকরা। পছন্দমত জায়গায় চাকরি করতে পারবেন। তাদের আয়ও বাড়বে। তারা অবারিত হতে পারবেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।