সাংবাদিকের হারানো আইফোন খুঁজে দিল বিমান কর্তৃপক্ষ

0
Travelion – Mobile

আভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ফেলা যাওয়া যাত্রীর ‘আই ফোন’ আন্তজার্তিক রুটের ফ্লাইট থেকে উদ্ধার করে দিয়ে যাত্রীসেবার আরও এক নজির গড়লো রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

ভাগ্যবান যাত্রীটি হলেন চট্টগ্রাম টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও দীপ্ত টেলিভিশনের বিভাগীয় প্রধান লতিফা আনসারী রুনা । ঢাকা থেকে শারজাহগামী ফ্লাইটে অভ্যন্তরীণ যাত্রী হিসেবে চট্টগ্রামে ফেরার সময়ে বিমানের আসনের পাশে ফেলে আসেন নিজের আইফোন। বিমান কর্মাকর্তাদের তৎপরতায় শারজাহ থেকে উদ্ধার হয়েছে সেই ফোন।

তিনি বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর বিজি ১৫১ নম্বর ফ্লাইটে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ফিরছিলাম শনিবার (১৪ মে)। আসন ছিল ৯-ডি। রাত সাড়ে ৮টায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে হঠাৎ খেয়াল হলো-আইফোন রয়ে গেছে বিমানে, আসনের পাশে। আমি হতাশ না হয়ে বিমানবন্দরের ম্যানেজারকে কল দিলাম, এরপর ট্রাফিক স্টেশান ম্যানেজার, কন্ট্রোল ও বিভিন্ন মাধ্যমে কল দিয়ে বিস্তারিত জানালাম। বিমানের দায়িত্বরতদের বললাম আপনারা একটু আন্তরিক হলে আমার ফোনটি পাওয়া সম্ভব।

amar lab – mobile

তিনি আরও বলেন, এভাবে যোগাযোগ অব্যাহত রাখলাম। ভোর ছয়টায় আবার কল দিলাম কোন খবর আছে কিনা জানতে, কারণ ততক্ষণে বিমানটি শারজাহ বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা। এরপরই খবর পেলাম ফোনটি পাওয়া গেছে এবং শারজা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ফিরতি ফ্লাইটে সেটি আসছে। এরপর বিকাল সাড়ে তিনটায় ঢাকা থেকে চট্টগামের উদ্দেশ্যে রওনা করলো প্রিয় মোবাইল সেটটি।

এ নিয়ে নিজের ফেসবুক ওয়ালে নিজেকে ‘ভাগ্যবতী’ বলে স্ট্যাটাসও দিয়েছেন লতিফা আনসারী রুনা। লিখেন, আমি অনেক ভাগ্যবতী। আমার বাংলাদেশ বিমানে ফেলে আসা ফোনটি ১৯ ঘন্টা পর সারজাহ হয়ে চট্টগ্রামে এসে পৌঁছেছে।

শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার ফরহাদ হোসেন খান বলেন,সাংবাদিক লতিফা আনসারী রুনার মোবাইল ফোন হারানোর খবর পাওয়ার পর দ্রুত উদ্যোগ নিয়ে শারজাহ স্টেশনে যোগাযোগ করা হয়। পরে সেটি পাওয়া যায়। বিজি ১৫১ ফ্লাইট শারজাহ থেকে চট্টগ্রাম এলে মোবাইলটি তাঁর কাছে হস্তান্তর করা হবে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন