শিল্প উন্নয়নে বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায় ইকুয়েটোরিয়াল গিনি

0
Travelion – Mobile

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উন্নয়নে বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায় আফ্রিকা মহাদেশের ক্ষুদ্রতম দেশ ইকুয়েটোরিয়াল গিনি। বাংলাদেশের চলমান অগ্রযাত্রার ভূয়সী প্রশংসা করে এ আগ্রহ রেখেছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি থিয়ডরো অবিআং এনগুয়েমাবা এমবিএসোগো ।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) স্থানীয় সময় দুপুরে রাজধানী মালাবোতে বাংলাদেশের নবনিযুক্ত অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদের পরিচয়পত্র পেশ অনুষ্ঠানে এই অভিমত রাথেন ইকুয়েটোরিয়াল গিনির রাষ্ট্রপতি।

রাষ্ট্রদূত সারওয়ার মাহমুদ রাষ্ট্রপতির আগ্রহে স্বতঃস্ফু্র্ত সাড়া দিয়ে বলেন, দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করতে বাংলাদেশ ইকুয়েটোরিয়াল গিনির উন্নয়নে অন্যতম অংশীদার হতে প্রস্তুত।

তিনি আরও বলেন, ইকুয়েটোরিয়াল গিনি অব্যহতভাবে গত দুই দশক ধরে আর্থ সামাজিক ক্ষেত্রে প্রভূত উন্নতি সাধন করেছে এবং আফ্রিকা মহাদেশে অন্যতম অর্থনেতিক শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছে। এদেশে উদীয়মান অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষ ও কর্মঠ জনশক্তির জন্য বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হতে পারে।

আরও পড়তে পারেন :ইকুয়েটোরিয়াল গিনি : বাংলাদেশিদের নতুন সম্ভাবনাময় গন্তব্য

amar lab – mobile

সম্ভাবনার নতুন ক্ষেত্র চিহ্নিত করে দু’দেশের সম্পর্ক আরো সম্প্রসারিত করার প্রতিশ্রুতি রেখে রাষ্ট্রদূত, বাংলাদেশের মানসম্মত ঔষধ, চামড়া ও চামড়াজাত দ্রব্য, হিমায়িত মৎস্য, গৃহস্থালীর কাজে ব্যবহার্য ইলেকট্রিক দ্রব্য সামগ্রী আমাদানিরও অনুরোধ জানান।

ইকুয়েটেরিয়াল গিনিতে প্রায় ২০০ বাংলাদেশি বিভিন্ন পেশায় অত্যন্ত সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে সারওয়ার মাহমুদ বাংলাদেশের থেকে বৈধপথে আরও অধিক সংখ্যক দক্ষকর্মী নেয়ার জন্য দু’দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের প্রস্তাব দেন।

ইকুয়েটেরিয়াল গিনির রাষ্ট্রপতি এসব বিষয়ে বেশ আগ্রহ দেখান এবং দ্রুত বাস্তবসম্মত উদ্যোগ ও সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এ ছাড়া তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক পদক্ষেপেরও প্রশংসা বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত ১.১ লাখ রোহিঙ্গাকে স্বেচ্ছায় নিরাপদ ও দ্রুত প্রত্যাবাসনের বিষয়ে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস দেন।

এ ছাড়া রাষ্ট্রপতি ও রাষ্ট্রদূত বস্ত্রখাত, বাণিজ্য, পর্যটন ও দুই দেশের নাগরিকদের মধ্যে যোগাযোগের মতো বিষয়গুলোতে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ব্যাপারে দৃঢ় অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, মোহাম্মদ সারোয়ার মাহমুদ বর্তমানে স্পেন, এন্ডোরা ও ইকুয়েটোরিয়াল গিনি- এ তিনটি দেশে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন