লেবাননে নতুন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর

0

মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমানকে লেবাননে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন পদে কাজ করেছেন। সেনাবাহিনীর মালিকাধীন মেশিন টুলস ফ্যাক্টরির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাংলাদেশ টি বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমানের জন্ম ১৯৬৭ সালের ৫ জুলাই তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের টাঙ্গাইল জেলায়। তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে যোগদান করেন এবং ১৯৮৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সেনা সার্ভিস কর্পসে কমিশন লাভ করেন।

মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিফেন্স স্টাডিজে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড এবং স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক হন এবং পাকিস্তানে কমান্ড প্রশিক্ষণ নেন।

মোস্তাহিদুর রহমান সাপ্লাই অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি স্টেশন সরবরাহ ডিপোর কমান্ডিং অফিসার ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ সেনা সদর দফতরে সহকারী সামরিক সচিব হিসাবে কর্মরত ছিলেন। তিনি সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা, বাহিনী গোয়েন্দা বিভাগের জেনারেলের বেশ কয়েকটি পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি এবং আর্মি সার্ভিস কর্পস স্কুলে প্রশিক্ষক হিসাবে কাজ করেছেন।

১৯৯১ সালে তাকে জাতিসংঘের ইরাক-কুয়েত পর্যবেক্ষণ মিশনে মোতায়েন করা হয়েছিল। তাকে পদোন্নতি দিয়ে আর্মি সার্ভিস কর্পস সেন্টার এবং স্কুল-এর কমান্ড্যান্ট হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছিল। তারপরে তাকে সেনা সদর দফতরে স্থানান্তর করা হয় যেখানে তিনি সরবরাহ ও পরিবহন অধিদপ্তরের পরিচালক হিসাবে কাজ করেছিলেন।

তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মালিকানাধীন বাংলাদেশ মেশিন টুলস কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি সুদানের জাতিসংঘ মিশনের ডেপুটি চিফ সাপ্লাই অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি লাইবেরিয়ায় জাতিসংঘ মিশনে এর ইন্টিগ্রেটেড সাপোর্ট সার্ভিসের উপ-প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ২০১৩ সালের ২০ মার্চ তিনি বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হন।

ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত ও তিন সন্তানের জনক।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...