লেবাননে জনগণকে ঘরে রাখতে মাঠে নামছে সেনাবাহিনী

করোনাভাইরাস প্রাদূর্ভাব রোধ

0

লেবাননে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে দেশটির নাগরিক এবং কিছু দেশের প্রবাসীরা বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হয়ে এবং জমায়েত করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। তাই এবার সরকারি সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে মাঠে নামানোর হচ্ছে সেনাবাহিনীসহ নিরাপত্তাবাহিনীকে।

করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৩০-এ উন্নীত হওয়ার পর শনিবার জাতির উদ্দেশ্যে একটি টেলিভিশন ভাষণে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হাসান ডিয়াব এই ঘোষণা দেন।

“আমি … সেনাবাহিনী, অভ্যন্তরীণ সুরক্ষা বাহিনী,জেনারেল সুরক্ষা এবং রাজ্য সুরক্ষাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি জনগণকে জরুরী প্রয়োজন না থাকলে ঘরে বসে থাকার এবং জমায়েত নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য অতিরিক্ত পরিকল্পনা প্রস্তুত এবং অবিলম্বে কার্যকর করতে,” প্রধানমন্ত্রী বলেন।

হাসান ডিয়াব আরও বলেন “করোনাভাইরাস বাড়ির দোরগোড়ায় অপেক্ষা করছে। এই হুমকির সাথে মোকাবিলা করা আমাদের সচেতনতা এবং আচরণের সর্বোচ্চ স্তরে হওয়া উচিত যা আমাদের মানুষ ও ছেলেদের রক্ষা করবে। ”

“গত দু’দিন ধরে মামলার সংখ্যা তীব্রভাবে বেড়েছে। ২৩০ জনে পৌঁছছে এবং ইতিমধ্যে চারজন ভাইরাসে মারা গেছে,” তিনি যোগ করেন।

“আমি আজ আপনাদেরকে স্ব-কারফিউ পালন করার জন্য আহ্বান করছি, কারণ এই ক্রমবর্ধমান মহামারীর সাথে সরকার নিজে একা মোকাবিলা করতে পারবে না। দায়বদ্ধতা জনগণ ব্যক্তি, সামরিক ও কর্মকর্তাদের,” ডিয়াব বলেন।

তিনি কর্তৃপক্ষকে এই করোনাভাইরাস মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় সরকারী-বেসরকারী হাসপাতালের শনাক্ত করার আহ্বান জানান।

রবিবার দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ ফাহমি সংবাদ সম্মেলন করে, রাস্তায় সেনাবাহিনীর টহলের নতুন পদক্ষেপের বিস্তারিত জানাবেন।

২৪ ঘন্টার মধ্যে ৬৭ জন নতুন আক্রান্ত রোগী যোগ হয়ে লেবাননে শনিবার করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্য ২৩০ টিতে পৌঁছে। যা টেলিভিশনে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নিশ্চিত করেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...