লকডাউন না মানলেই গুলি করে মেরে ফেলার নির্দেশ!

ফিলিপাইনের রাষ্ট্রপতি

0

করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে ফিলিপাইনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে । কিন্তু অনেকেই লকডাউন বা গৃহবন্দি থাকার বিষয়টি খুবই হালকা ভাবে নিচ্ছেন।

তাই এবার কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রদরিগো দুতেরতা। পুলিশকে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন, লকডাউন বা কোয়ারানটিন না মানলে গুলি করে মেরে ফেলতে।

আল জাজিরার খবর অনুযায়ী তিনি বলেছেন,’আমি একদম দ্বিধা বোধ করব না। আমি পুলিশ ও সেনাকে বলছি যাঁরা মারামারি করছেন, নির্দেশ মানছেন না গুলি করে দিন তাঁদের। বুঝতে পেরেছেন? করোনা ছড়িয়ে মরার চেয়ে গুলি খেয়ে মরা ভালো।’

রডরিগো দুতেরতার মতে, প্রশাসন সবরকম ভাবে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে এবং উল্লঙ্ঘনকারীদের ছেড়ে দেওয়া হবে না। ফিলিপিন্সে ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসে মৃত ৯৬, আক্রান্ত প্রায় ২৩১১। গত তিন সপ্তাহে আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ৩ জন হলেও বর্তমানে প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

Mga residente ng Bagong Pag-asa, QC, nagtipon sa EDSA

Naglabasan sa EDSA ang mga residente ng Sitio San Roque, Barangay Bagong Pag-asa sa Quezon City nitong Miyerkoles ng tanghali para manawagan ng tulong na pagkain sa lokal na pamahalaan. Reklamo nila na may ilang residenteng hindi nabigyan ng ayuda habang ang iba namang nabigyan ng tulong ay naubos na dahil hindi sapat para sa buong pamilya.Nauwi sa habulan ang pagpapauwi sa mga residente habang ang iba ay inaresto ng pulisya. #LuzonLockdown #COVID19 | via Zhander Cayabyab, ABS-CBN News

Posted by ABS-CBN News on Tuesday, March 31, 2020

বুধবার ম্যানিলার একটি দুঃস্থ অঞ্চলে যথাযথ খাবার না পাওয়ায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখান কয়েকজন, গ্রেফতার হন তাঁরা। অনেক ক্ষেত্রেই বৈষম্য ও রোগীর পরিজনের ক্রোধের মুখে পড়ছেন চিকিৎসক স্বাস্থ্যসেবার সাথে যুক্ত কর্মীরা। প্রতিদিন স্বাস্থ্যকর্মীদের নিগৃহীত হওয়ার ঘটনা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রডরিগো দুতেরতা।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...