যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

0
Travelion – Mobile

যুক্তরাজ্যে যথাযোগ্য মর্যাদা ও শ্রদ্ধায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থবিধি মেনে দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা দিবসের আয়োজনে অংশ নেন।

রোববার সকালে লন্ডনে হাইকমিশন প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের কার্যক্রমের সূচনা করেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম।

দ্বিতীয় পর্বে অনুষ্ঠিত দিবসের আলোচনা সভার শুরুতে ‘ঐতিহাসিক ৭ মার্চ’ উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পড়ে শোনানো হয়।

amar lab – mobile

অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, “বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই ঐতিহাসিক ভাষণ ছিল মূলত বাঙালি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামের বীজমন্ত্র ও মুক্তির সনদ। এই ভাষণের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের প্রেক্ষাপটকে বিবেচনা করে বাঙালি জাতির মুক্তির পথ দেখিয়েছিলেন।

যুক্তরাজ্যে যথাযোগ্য মর্যাদা ও শ্রদ্ধায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন
যুক্তরাজ্যে যথাযোগ্য মর্যাদা ও শ্রদ্ধায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন করেছে বাংলাদেশ হাইকমিশন

বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসেবে আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, একটি রাজনৈতিক ভাষণ কীভাবে একটি জাতির মুক্তির দিশা দিতে পারে এবং সেইসঙ্গে সাংস্কৃতিক চেতনাকে সমৃদ্ধ করে নতুন পথের সন্ধান দিতে পারে- বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ তার জ্বলন্ত প্রমাণ। এই ভাষণ শুধু মুক্তিকামী বাঙালিদেরই নয় বরং সারা বিশ্বের হতদরিদ্র এবং অত্যাচারিত মানুষদেরও ডাক দিয়েছিলেন এই ভাষণের মাধ্যমে।

হাইকমিশনার আরও বলেন, ইউনেস্কো বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণটিকে ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে এর শ্রেষ্ঠত্ব ও গুরুত্ব আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। আজ হতে শতবর্ষ পরেও এই ভাষণ সব দেশের সকল নিপীড়িত ও স্বাধীকারকামী মানুষের মুক্তির দিক-নির্দেশনা হয়ে থাকবে।”

৮ মার্চ সোমবার বাংলাদেশ হাইকমিশন, লন্ডন বিকেল ৩টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা) বঙ্গবন্ধুর এই ঐতিহাসিক ভাষণের আইরিশ, স্কটিশ এবং ওয়েলশ অনুবাদ প্রকাশ উপলক্ষে এক বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে (লিংক https://bhclondon-org-uk.zoom.us/j/91237077676) যুক্ত থাকার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বাংলাদেশ হাইকমিশন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন