মালয়েশিয়ায় ২ মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে পিতার ৪২৮ বছরের জেল

বিশ্ব

0

মালয়েশিয়ায় মালাকা প্রদেশে ৫৬ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে তার দুই মেয়েকে যৌন নির্যাতন এবং তার স্ত্রীকে হুমকি দেওয়ার জন্য ৪২৮ বছরের জেল এবং ২৪০ টি বেত্রাঘাতের শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দায়রা আদালতের বিচারক নরিমান বদরুদ্দিন ২০১৫ সাল থেকে বর্তমানে ১৫ এবং ১৯ বছর বয়সী দুই মেয়েকে, ধর্ষণ, অস্বাভাবিক যৌন কাজ এবং যৌন নিপীড়নের ২৮ টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করার পরে সাজা ঘোষণা করেন।

অপর একটি আদালত, অভিযুক্তকে তার ৪৭ বছর বয়সী স্ত্রীকে ভয় দেখানোর অপরাধে ফৌজদারি দণ্ডবিধির ৫০৬ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ।

Travelion – Mobile

উভয় আদালতের সাজাগুলোর মেয়াদ একই সাথে চালানোর আদেশ দেওয়া হয়েছে, যার অর্থ অভিযুক্তকে মোট ৪৫ বছর জেল খাটতে হবে এবং সর্বোচ্চ ২৪টি বেতের আঘাত পাবে।

দোষী ব্যক্তি মালাকার একটি বিনিয়োগ কোম্পানির সুপারভাইজার হিসাবে নিয়োজিত। তার দুই স্ত্রী ও তিন কন্যা রয়েছে।

মামলার বিবরণে বলা হয়, অভিযুক্তে ব্যক্তি ৫ সেপ্টেম্বর তামান থামবি চিকের নিজ বাড়িতে তার ১৫ বছর বয়সী মেয়ের সাথে যৌন সম্পর্ক করার সময় তার দ্বিতীয় স্ত্রীর কাছে ধরা পড়ে।

পরে দ্বিতীয় স্ত্রী থানায় মামলা দায়ের করেন, যখন জানতে পারেন তার স্বামী দুই মেয়েকে ১২ বছর বয়স থকে যৌন নিপীড়ন করে আসছে। পুলিশ ওই ব্যক্তি গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়।

১৯ বছর বয়সী বড় মেয়ে এখন সেলাঙ্গোরে কলেজ ছাত্রী, ২০১৫ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে পিতার যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিল। দ্বিতীয় মেয়ে ২০১৯ সালের ৪ মে থেকে গত ৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়৷

আরও পড়তে পরেন : মালয়েশিয়ায় অভিযোগের তালিকার শীর্ষে ‘এয়ারএশিয়া’

অভিযুক্তকে দণ্ডবিধির ৩৭৬ (৩) ধারায় তার মেয়েদের ধর্ষণের ২১ টি অভিযোগে সাজা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও শিশুদের বিরুদ্ধে যৌন অপরাধ, ভিকটিমদের গোপনাঙ্গে বস্তু ঢোকানো এবং অপ্রাকৃত যৌনতার জন্য শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

এর আগে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) শুনানীতে অভিযুক্তের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত জানিয়েছিল যে, ৫০ বছরের বেশি বয়সী হওয়া সত্ত্বেও অভিযুক্তকে প্রতি চার্জের জন্য ১০ বেত্রাঘাতেরবাধ্যতামূলক জরিমানা থেকে রেহাই দেওয়া হবে না। অভিযুক্ত, যিনি প্রতিনিধিত্বহীন ছিলেন, সমস্ত অভিযোগের জন্য ১,০০,০০০ রিঙ্হিত জামিনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল৷ তবে তিনি জামিন নিতে পারেননি এবং আদালতকে জানান যে, তিনি হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসেও ভুগছেন।

সূত্র : দ্য স্টার

মালয়েশিয়ার আরও খবর :
মালয়েশিয়ায় শ্রম রপ্তানি : সিন্ডিকেটবিরোধী আন্দোলনকারীরাই যাচ্ছেন সিন্ডিকেটে!
মালয়েশিয়াতে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৪ জনসহ নিহত ৭
মালয়েশিয়ার সংসদ ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা আসছে শিগগিরই

আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজ যুক্ত হতে চাইলে এখানে ক্লিক করার অনুরোধ

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন