মালয়েশিয়ায় অভিবাসী কর্মীদের বেতন কাটলে নিয়োগকর্তার কোটা বাতিল : মানবসম্পদ মন্ত্রী

0

মালয়েশিয়ার মানব সম্পদমন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বলেছেন, অভিবাসী কর্মী নিয়োগের পর নিয়োগকর্তারা যদি (তাদের) কর্মীদের বেতন কমানো অথবা বেতন দিতে গড়িমসি করে তাহলে শ্রমিক নিয়োগের কোটা বাতিল করা হবে।

সারাভানান বলেন, যে কোনো নিয়োগকর্তা বিদেশি কর্মী নিয়ে এলে তাকে অবশ্যই বাসস্থান ও বিমান ভাড়াসহ সব খরচ বহন করতে হবে, যাতে শূন্য খরচে বিদেশি কর্মীরা মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করতে পারে।

বৃহস্পতিবার, ঢাকায় বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের (জেডব্লিউজি) বৈঠকে যোগ দিয়ে দেশে ফিরে আজ শুক্রবার (৩ জুন) এক সংবাদ সম্মেলনে এম সারাভানান এ কথা বলেন।

Travelion – Mobile

তিনি বলেন, শ্রমিকদের নিজ দেশে এজেন্ট সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে মন্ত্রণালয় হস্তক্ষেপ করতে পারে না।

“নিয়োগকর্তারা অবশ্যই পরে শ্রমিকদের বেতন কেটে প্রতিস্থাপন করার জন্য খরচ বহন করবেন না। যদি ডিজিটাল অ্যাপ্লিকেশন ওয়ার্কিং ফর ওয়ার্কার্স (ডব্লিউএফডব্লিউ) এর মাধ্যমে শ্রমিকদের দ্বারা অভিযোগ করা হয় তবে আমরা তাদের (নিয়োগকারীদের) কোটা বাতিল করব”,
মন্ত্রী যোগ করেন ।

সারাভানান গতকাল ঢাকায় বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের (জেডব্লিউজি) বৈঠকে মন্ত্রী পর্যায়ের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেওয়ার সময় বাংলাদেশের কর্মসংস্থান সংস্থাগুলির প্রতিবাদ অস্বীকার করেন।

প্রকৃতপক্ষে, তাকে একটি ভাল অভ্যর্থনা দেওয়া হয়েছিল এবং মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের প্রবেশের বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করতে পেরেছিলেন, জানান তিনি ।

“আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বাংলাদেশের আটজন মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি। নীতিগতভাবে, আমরা বৃক্ষরোপণ, কৃষি, উৎপাদন এবং উন্নয়নের মতো বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশি শ্রমিক আনতে রাজি হয়েছি,” তিনি বলেন।

অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি (বায়রা) মাত্র ২৫ জন বাংলাদেশি রিক্রুটমেন্ট এজেন্টকে অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে মালয়েশিয়ার অবস্থানের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দিয়েছিল।

মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়া এখনও দেশে নতুন কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে মাত্র ২৫ জন এজেন্টকে অনুমতি দেওয়ার অবস্থান মেনে চলবে এবং মন্ত্রণালয় ১৫২০ এজেন্টের আবেদন অধ্যয়ন ও
যাচাই করার জন্য একটি কমিটি গঠন করেছে।

প্রসঙ্গত, গতকাল জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের (জেডব্লিউজি) বৈঠক শেষে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ জানান, ‘আগামী পাঁচ বছরে ৫ লাখ কর্মী নেওয়ার কথা জানিয়েছে মালয়েশিয়া। প্রথম বছর দুই লাখ। চলতি মাস (জুন) থেকেই বাংলাদেশি কর্মীদের যাত্রা শুরু হবে। সর্বনিম্ন বেতন হবে ৩০ হাজার ৪০০ টাকা (১৫০০ রিঙ্গিত)।

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন