বিনামূল্যে চাঁদে বেড়ানোর সুযোগ! সঙ্গী খুঁজছেন জাপানি ধনকুবে

0

ইয়ুসাকু মায়জাওয়া, জাপানি অনলাইন ফ্যাশন টাইকুন। সম্ভবত ২০২৩ সালে ভাড়া করা রকেটে চড়ে চাঁদের পথে উড়াল দেবেন এই ধনকুবে। চাঁদ ছোঁয়ার এ সৌভাগ্যে তিনি সঙ্গী করতে চান সারা বিশ্ব ধেকে ৮জনকে। এই ইচ্ছায় বিনা খরচে চাঁদে যেতে আগ্রহীদের খোলাখুলি প্রস্তাবও দিয়েছেন তিনি।

স্পেসএক্স নামে এক সংস্থা চাঁদে যাওয়ার জন্য বানাচ্ছে যাত্রীবাহী রকেট। এই নভোযানে করে চন্দ্র অভিযানে যেতে ২০১৮ সালে তিনিই প্রথম বুকিং দিয়েছিলেন ইয়ুসাকু। কত টাকা ভাড়ায় বুকিং দিয়েছেন তা প্রকাশ করা হয়নি।

বুধবার টুইটারে ভিডিও পোস্টে ইউসুকা জানিয়েছেন, বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে তিনি বেছে নেবেন আটজনকে। তারা তাঁর সঙ্গে চাঁদে বেড়াতে যাবে। তিনি স্পেস এক্সের মহাকাশযানের সব সিটই বুক করে ফেলেছেন। অর্থাৎ তিনি সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত সফরে যাচ্ছেন চাঁদে। মহাকাশযানে চড়ে কে কে যাবে, তা তিনিই ঠিক করবেন। ভিডিওতে ইয়ুসাকু আটজনকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ওই চন্দ্র অভিযানে অংশগ্রহণের আবেদনসংক্রান্ত প্রক্রিয়ার কথা তুলে ধরেছেন।

মায়জাওয়া বলেন, ‘এই মিশনে আমার সঙ্গে অংশ নিতে আমি আপনাদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। সারা বিশ্ব থেকে আপনাদের মধ্যে আটজন এই সুযোগ পাবেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি সব আসন কিনে নিয়েছি। তাই এটি হবে একটি ব্যক্তিগত অভিযান।’

৪৫ বছর বয়সী ইউসুকা বলেন, প্রথমে তিনি ভেবেছিলেন, শুধু শিল্পীদের সঙ্গে নিয়ে যাবেন। পরে ভেবেছেন, যাঁরা কোনও সৃজনশীল কাজ করেন, তাঁরা সকলেই শিল্পী। তাঁর সঙ্গে চাঁদে যেতে হলে একটি ফর্ম ফিল আপ করতে হবে। তাতে থাকবে দু’টি শর্ত। এক নম্বর শর্ত, আপনি কি নতুন নতুন আইডিয়া ভালবাসেন? দ্বিতীয় শর্ত, আপনি কি মহাকাশযানে সহযাত্রীদের সঙ্গে বোঝাপড়া করে নিতে পারবেন?

জাপানি বিলিওনেয়ার জানিয়েছেন, সব মিলিয়ে নভোযানে ১০ থেকে ১২ টি আসন আছে। যাঁরা চাঁদে যাওয়ার জন্য আবেদন করবেন, তাঁদের ‘প্রি রেজিস্ট্রেশন’ হবে ১৪ মার্চের মধ্যে। ২১ মার্চ হবে প্রথম দফার বাছাই। যাঁরা বাছাই হবেন, তাঁদের একটি কাজ দেওয়া হবে। যাঁরা কাজটি করতে পারবেন তাঁদের ইন্টারভিউ নেওয়া হবে অনলাইনে। তবে এর জন্য সুনির্দিষ্ট দিনক্ষণ ঘোষণা করা হয়নি। তবে চূড়ান্ত অভিযান ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা আগামী মে মাসের মধ্যে শেষ হতে পারে বলে জানায় মায়জাওয়ার ওয়েবসাইট।

স্পেস এক্স ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে চাঁদে একটি রকেট পাঠিয়েছিল। গত মাসে সেটি চন্দ্রপৃষ্ঠ ছোঁয়ার কিছুক্ষণ আগে বিরাট বিস্ফোরণে টুকরো টুকরো হয়ে যায়। এর আগে ডিসেম্বরে স্পেস এক্সের একটি মহাকাশযান একইভাবে ধ্বংস হয়েছে। কিন্তু ওই সংস্থার বিশ্বাস, আগামী দিনে তারা ঠিকই চাঁদে রকেট পাঠাতে পারবে।

স্পেস এক্স সংস্থার মালিক ধনকুবের ইলোন মাস্ক বলেন,“আমি নিশ্চিত আগামী দিনে আমাদের রকেটে চড়ে চাঁদে মানুষ যেতে পারবে। সম্পূর্ণ নিরাপদে চাঁদ থেকে ঘুরে আসতে পারবে তারা।”

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন