বাংলাদেশ-কাতার চার সমঝোতা চুক্তিতে একমত

দক্ষ জনশক্তি নিতে আগ্রহ

0

কয়েক মাস বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য খুলে যাওয়া শ্রমবাজারে দক্ষ জনশক্তি নিতে আগ্রহ প্রকাশ কাতারের । একইসঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশটি বাংলাদেশের সঙ্গে চার সমঝোতা চুক্তিতে একমত হয়েছে। আগামী তিন মাসে দুই দেশের মধ্যে এসব চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে।

আজ সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ঢাকায় অনুষ্ঠিত দুই দেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীদের প্রথম বৈঠকে বিষয়গুলো ওঠে আসে। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় কাতারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সুলতান বিন সাদ আল মুরাইখির সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রায় দুই ঘণ্টার মতো সময় আলোচনা করেছি। কাতার আমাদের দেশ থেকে দক্ষকর্মী নিতে চায়। কাতারে যেসব বাংলাদেশি আছে তাদের নিয়ে কথা হয়েছে। তাছাড়া আরও নতুন কী কী ক্ষেত্রে আমাদের এখান থেকে মানুষ পাঠাতে পারি এসব নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশি আছেন সাড়ে তিন লাখের মতো। নতুন কোনো ক্ষেত্রে আমাদের এখান থেকে আরও লোকজন পাঠাতে পারি, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ২০২২ সালের ফিফা বিশ্বকাপকে সামনে রেখে তাদের নতুন চাহিদা আছে। প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় আরও জোরালোভাবে কাজ করবে।’

ব্যবসা ও বিনিয়োগ বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, কাতারের যথেষ্ট তহবিল আছে বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য। বাংলাদেশে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশের সুযোগ কাজে লাগিয়ে এখানে কাতার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও কাতার তহবিল লাভজনক ব্যবসায় বিনিয়োগ করতে পারে, সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। সম্ভাব্য বিনিয়োগের জন্য কিছু কাঠামো করার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে।

মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, দুই দেশ আগামী তিন মাসের মধ্যে অন্তত তিন থেকে চারটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সইয়ের জন্য চূড়ান্ত করবে। এর মধ্যে রয়েছে কূটনৈতিক ও সরকারি কর্মকর্তাদের ভিসা রহিত করা, দ্বৈত কর প্রত্যাহার এবং দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের হস্তান্তর।

সেখানে অনেক বাংলাদেশি থাকেন। কেউ যদি কোনো অপরাধ করে ফেলেন, সেখানে সাজা হওয়ার পর তাঁরা যেন বাংলাদেশে আসতে পারেন, সে জন্য দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের হস্তান্তরের এমওইউ। অনেক দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের এ ধরনের এমওইউ আছে, তিনি যোগ করেন।

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থায় নির্বাচনের ক্ষেত্রে একে অন্যকে সহযোগিতার বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। ভবিষ্যতে দুই দেশের মধ্যে উচ্চপর্যায়ের সফর বিনিময়ের বিষয়ে আলোচনার কথা জানান তিনি।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...