বাংলাদেশের সঙ্গে সাংস্কৃতিক সর্ম্পক জোরদারে বাহরাইনের আগ্রহ

0

সমৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যে বাহরাইন ও বাংলাদেশের মধ্যকার সাংস্কৃতিক সর্ম্পক ও আন্দোলনকে জোরদার করার বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছেন দেশটির সংস্কৃতি ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক সংস্থার প্রধান শেখা মাই বিনতে মোহাম্মদ আল খলিফা।

তিনি বলেছেন, জাতির সঙ্গে জাতির কিংবা মানুষে মানুষে যোগাযোগের সেতুবন্ধন নির্মাণে সংস্কৃতির গুরুত্ব ও অবদান সবচেয়ে বেশি।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) রাজধানী মানামায় নিজ কার্যালয়ে বাহরাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মো. নজরুল ইসলামের সঙ্গে সৌজন্য বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় বাহরাইনের সংস্কৃতি ও কলা বিষয়ক মহাপরিচালক শেখা হালা বিনতে মোহাম্মদ আল খলিফা এবং বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান মো. রবিউল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রদূত ড. মো. নজরুল ইসলাম সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধি অর্জনে সব পক্ষকে সম্পৃক্তে তার আগ্রহের জন্য শেখা মাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধির নানা দিক তুলে ধরে তা বাহরাইনের জনগণের সাথে ভাগাভাগি করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

রাষ্ট্রদূত আশা প্রকাশ করেন, আগামী দিনগুলোতে দূতাবাস এবং সাংস্কৃতি অধিদপ্তর পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় ও দৃষ্টিভঙ্গির লক্ষ্য অর্জনে, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে একযোগে কাজ করে যাবে।

ড. নজরুল জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের কথা উল্লেখ করে বলেন, এই বছরের মধ্যেই দূতাবাস একটি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ও স্বনামধন্য চারুশিল্পীর চিত্রকলা প্রদর্শনী আয়োজনের পাশাপাশি ফুড ফেস্টিভ্যাল আয়োজনের পরিকল্পনা করেছে।

বৈঠক শেষে রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ হতে মুদ্রিত ‘বুক অফ মস্ক’-এর প্রথম সংস্করণের একটি কপি এবং জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ এবং বাংলাদেশি শিল্পীর চিত্রকর্ম ও বাংলাদেশের চামড়াজাত পণ্যসামগ্রীর স্যুভেনির শেখা মাইকের হাতে তুলে দেন। ‘বুক অফ মস্ক’ বইটির মুখবন্ধ শেখা মাই লিখেছেন ।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন