বাংলাদেশের প্রশংসায় ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রপতি

0

ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি সালেওয়ার্ক জুয়েদেক বর্তমান সরকারের অধীনে বাংলাদেশের সার্বিক আর্থ-সামাজিক উন্নতির প্রশংসা করেছেন এবং বাংলাদেশি উদ্যোক্তাদের ইথিওপিয়ার বিশেষায়িত অঞ্চলসমূহের বিশেষ সুবিধার সুযোগ নিয়ে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

ইথিওপিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত মো. নজরুল ইসলাম তার কাছে পরিচয়পত্র পেশ করার সময় এ অভিমত জানান।

মঙ্গলবার(১ জুন) দেশটির রাজধানী আদ্দিস আবাবায় রাষ্ট্রপতি ভবনে পরিচয়পত্র জমার সময় রাষ্ট্রদূত ইথিওপিয়ার সরকার ও জনগণের জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শুভেচ্ছা পৌঁছে দেন। ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রপতি জুয়েদেক বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ইথিওপিয়ার জনগণের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানান।

রাষ্ট্রদূত মো. নজরুল ইসলাম ইথিওপিয়া এবং বাংলাদেশের মধ্যে পাঁচ শতাব্দী প্রাচীন দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে জানান, আন্তরিক এবং গভীর সম্পর্ক পুনরুজ্জীবিতকরণ তার অন্যতম লক্ষ্য।

তিনি বর্তমান সরকারের সময়ে বাংলাদেশের বিস্ময়কর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, মুজিব শতবর্ষ উদযাপন ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে সরকার গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন এবং বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা ও বাংলাদেশিদের পেশাদারী নৈপুণ্য ইথিওপিয়ার উন্নতিতে কাজে লাগানোর প্রস্তাব করেন।

রাষ্ট্রদূত কৃষি ও শান্তি রক্ষায় বাংলাদেশের সাফল্য উল্লেখ করে বাংলাদেশের কৃষিকাজ লব্ধ জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা ইথিওপিয়ার উর্বর কিন্তু বিপুল পরিমানে অব্যবহৃত জমিতে প্রয়োগের প্রস্তাব করেন এবং ইথিওপিয় সামরিক বাহিনী বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর উন্নত প্রশিক্ষণ সুবিধাদির সুযোগ গ্রহন করতে পারে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।

রাষ্ট্রপতি সালেওয়ার্ক জুয়েদেক বাংলাদেশের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশের প্রবর্তিত ক্ষুদ্র ঋণ ও নারীর ক্ষমতায়ন অন্যান্য সবার জন্য একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

তিনি দুইদেশের সর্ম্পক ও সহযোগিতা জোরদার আগ্রহ প্রকাশ করে অর্থনীতি ও সামাজিক উন্নয়নের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা থেকে ইথিওপিয়া মূল্যবান শিক্ষা নিতে পারে বলে অভিমত রাখেন।

রাষ্ট্রপতি ইথিওপিয়ায় দায়িত্বকালীন তার এবং সরকার পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূতকে সার্বিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার প্রয়াসে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন ।

নজরুল ইসলাম করোনাভাইরাস মহামারির পরে বাংলাদেশ থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধির সফরের প্রস্তাব করেন এবং ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রপতিকে সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান।

১৫ তম বিসিএস ক্যাডারের কূটনীতিক মো. নজরুল ইসলাম গত বছরের সেপ্টেম্বরের নিয়োগ পেয়ে এই বছরের মার্চে ইথিওপিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে যোগ দেন। একই সঙ্গে তিনি সঙ্গে সুদান, দক্ষিণ সুদান এবং বুরুন্ডির অনাবাসিক রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর সহধর্মিনী কূটনীতিক নাহিদা সোবহান বর্তমানে জর্ডানে বাংলাদেশে রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন