ফায়ার সার্ভিস গাড়ির সঙ্গে সংঘর্ষে উড়োজাহাজে আগুন, নিহত ২

0

পেরুর রাজধানী লিমার হোর্হে চাভেজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়েতে একটি উড়োজাহাজের সঙ্গে ফায়ারট্রাকের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে, এতে দুই দমকলকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকালে ল্যাটাম এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ উড্ডয়নের জন্য রানওয়ে ধরে দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এয়ারলাইনটি জানিয়েছে, এ ঘটনায় কোনো যাত্রী বা ক্রু সদস্য নিহত হয়নি।

Travelion – Mobile

পেরুর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সন্ধ্যা ৭টায় ২০ জন যাত্রীকে একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল,তাদের মধ্যে অন্তত দুই জনের অবস্থা গুরুতর ছিল।

এভিয়েশনের সব খবর জানতে, এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

মন্ত্রণালয়টি জানিয়েছে, বিমানবন্দরটি থেকে ৬১ জনকে নিকটবর্তী ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলোতে নেওয়া হয়েছে। তারা আহত হয়েছেন না সতর্কতা হিসেবে তাদের সেখানে নেওয়া হয়েছ তা পরিষ্কার হয়নি।

টুইটারে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে এ ঘটনায় দুই দমকলকর্মী নিহত হওয়ায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পেরুর প্রেসিডেন্ট পেদ্রো কাস্তিয়ো, নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। যারা আহত হয়েছে তাদের দ্রুত ‍সুস্থতা কামনা করেছেন।

উড়োজাহাজটি উড্ডয়নকালে দুটি ফায়ারট্রাক কেন রানওয়েতে প্রবেশ করেছিল তা পরিষ্কার হয়নি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওতে উড়োজাহাজটির বিপরীত দিক থেকে আসা দুটি ফায়ারট্রাকের সামনেরটিকে রানওয়ে থেকে সরে যাওয়ার চেষ্টা করতে দেখা গেছে।

অনিচ্ছাকৃত হত্যাকাণ্ড ধরে নিয়ে তারা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বলে পেরুর অভিশংসক দপ্তর জানিয়েছে।

এই নিয়ে এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে ল্যাটাম এয়ারলাইন্সের দ্বিতীয় আরেকটি বিমান দুর্ঘটনায় পড়ল। এর আগে এয়ারলাইন্সটির আরেকটি উড়োজাহাজ ঝড়ের মধ্যে জরুরি অবতরণে বাধ্য হওয়া সময় সেটির নাক ভেঙ্গে যায়।

চিলিভিত্তিক ল্যাটাম এয়ারলাইন্সের পেরু শাখা জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য তারা সম্ভাব্য সবকিছুই করছে এবং তদন্তে কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা দিচ্ছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ফায়ারট্রাকটিকে এড়ানোর চেষ্টায় উড়োজাহাজটি রানওয়ের একপাশে সরে যাওয়ার চেষ্টা করার পরও সংঘর্ষ ঘটে, এতে উড়োজাহাজটিতে আগুন ধরে যায় আর প্রচুর ধোঁয়া বের হতে থাকে তখন সেটি থেমে যায়।

পানামাগামী ফ্লাইটে ওঠার জন্য অপেক্ষারত ব্রাজিলীয় যাত্রী মাউরো ফেরেরা ঘটনাটির ভিডিও করেন।

তিনি বলেন, “বিমানটি না থামা পর্যন্ত ডিপারচার লাউঞ্জে থাকা আমরা সবাই অত্যন্ত শঙ্কিত ছিলাম, তারপর ফায়ার ইঞ্জিন ও অ্যাম্বুলেন্সগুলো চলে আসে। আমরা খুব আতঙ্কিত ছিলাম, কারণ আগুনের শিখা অনেকদূর উঠেছিল আর বিমানে কতোজন মানুষ ছিল তা জানা ছিল না।”

এভিয়েশনের সব খবর জানতে, এখানে ক্লিক করে আকাশযাত্রার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকার অনুরোধ

পেরুর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিমানবন্দর হোর্হে চাভেজ পরিচালনাকারী কোম্পানি লিমা এয়ারপোর্ট পার্টনারস্ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শনিবার দুপুর ১টা পর্যন্ত বিমানবন্দরটি বন্ধ থাকবে।

ল্যাটাম এয়ারলাইন্স জানিয়েছে, পেরুর লিমা-হুলিয়াকা অভ্যন্তরীণ রুটের এলএ২২১৩ ফ্লাইটটি দুর্ঘটনায় পড়েছে।

al sohar – mobile

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন