‘দেশের মাটিতে মৃত্যু’ পূরণ হল প্রবাসীর শেষ ইচ্ছা

0

অবশেষে শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী নিজ দেশের মাটিতেই মৃত্যু হল সিঙ্গাপুরপ্রবাসী এক বাংলাদেশির রেমিট্যান্সযোদ্ধার।

তিনি সাদেকুর রহমান। চাঁদপুরের মতলবের সন্তান ২৫ বছর ধরে সিঙ্গাপুরে প্রবাসী। কাজ করতেন সেখানকার ‘কেপেল ফেলস’ জাহাজ নির্মাণ কারখানায়। পাঁচ ভাই ও এক বোনের মধ্যে সাদেকুর ছিলেন সবার ছোট৷ তার তিনটি মেয়ে সন্তান আছে।

সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে দীর্ঘ মাস ধরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে হাল ছাড়েন সাদেকুর রহমান৷ শেষ ইচ্ছায় তাকে ফিরিয়ে আনা হয় বাংলাদেশে। সোমবার রাতে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সাদেকুরের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ১৮ জানুয়ারি সাদেকুর হঠাৎ অসুস্থ হলে সিঙ্গাপুর এনজি তেং ফং হাসপাতালে ভর্তি হন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানা যায় তিনি লিভারে ইনফেকশন বা যকৃত সংক্রমণে আক্রান্ত৷ সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখেন।

বিডিনিউজ২৪.কমের প্রতিবেদনে বলা হয়, চিকিৎসায় উন্নতি না দেখে সাদেকুরের কোম্পানি ‘কেপেল ফেলস’ তার স্ত্রী ও বড় ভাই বাবুকে সিঙ্গাপুরে ডেকে আনেন। স্ত্রী ও বড় ভাই প্রায় ১৫ দিন তার দেখাশোনা করেন৷

“একসময় সাদেকুর বুঝতে পারেন তার সময় আর বেশি নেই৷ তিনি চিকিৎসকদের ডেকে বলেন, আমি মনে হয় বাঁচব না৷ আমাকে দেশে পাঠিয়ে দিন৷ দেশের মাটিতে মারা যেতে চাই। যে কয়দিন বাঁচি সন্তান ও পরিবারের সঙ্গে কাটাতে চাই”, বলেন, তার বন্ধু আরেক সিঙ্গাপুরপ্রবাসী বাংলাদেশি আহসান হাবীব।

এ অবস্থায় এনজি তেং ফং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সাদেকুরের স্ত্রী ও বড় ভাইয়ের সঙ্গে তাকে দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। হাসপাতালের একজন চিকিৎসক তাদের সফরসঙ্গী হন।

তিনি বাংলাদেশের চিকিৎসকদের কাছে সাদেকুরের চিকিৎসার সর্বশেষ অবস্থা জানিয়ে সিঙ্গাপুর ফিরে আসেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...