কুয়েতে ‘কিয়াম’র সময় হ্রাস, মসজিদে কেবল পুরুষদের অনুমতি

0

কুয়েতে রমজানের মাসের শেষ দশ দিনে মসজিদে “রাতের নামাজ” (কিয়াম) সম্পর্কিত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে দেশটির আওকাফ ও ইসলামিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তি উদ্ধৃতি দিয়ে আরবি দৈনিকআল-কাবাস প্রতিদিন জানিয়েছে, শুধু পুরুষদের মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি রয়েছে তবে ৩০ মিনিটের মধ্যে নামাজ শেষ করতে হবে। হাওয়ালি, নুগ্রা, ময়দান হাওয়ালি, সালমিয়া, জ্লেব আল-শুয়ূখ এবং মাহবুউলার মতো ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চলে এই জাতীয় নামাজ পড়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এসব অঞ্চলের মসজিদ ব্যতীত যে সমস্ত মসজিদে তারাবীহ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়, সেখানে কিয়ামের নামাজ আদায় করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা বাকি নির্দেশনাগুলো নিচে দেওয়া হল:
কিয়ামের নামাজ মধ্যরাতের ১২ টার পরে শুরু করতে হবে ।
বর্তমানে মসজিদগুলিতে যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে সেগুলি মেনে এশার নামাজের পরপরই পুরুষরা মসজিদে তারাবীহ নামাজ চালিয়ে যাবেন।
প্রতিটি নামাজের পরে মসজিদগুলি বন্ধ করে দেওয়া এবং বক্তৃতা, পাঠ এবং অন্যান্য ক্রিয়াকলাপগুলি নিষিদ্ধ থাকবে।
মসজিদে উপস্থিতি কেবল পুরুষদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। মহিলা এবং শিশুদের অনুমতি নেই।
মাস্ক পরা, ব্যক্তিগত ম্যাট ব্যবহার এবং মুসল্লীদদের মধ্যে শারীরিক দূরুত্ব বজায় রাখতে হবে।
মসজিদে ইফতার ও সুহুর পরিবেশন নিষিদ্ধ থাকবে।
যারা করোনা ভ্যাকসিন পাননি তাদের বাড়িতে নামাজ পড়ার অনুরোধ রাখা হয়েছে। প্রবীণ, দীর্ঘস্থায়ী রোগে আক্রান্ত এবং চলাচলে অক্ষম ব্যক্তিদের বাড়িতে কিয়ামের নামাজ পড়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
মসজিদ এবং করিডোরগুলির ভিতরে সাধারণ পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে হবে এবং প্রতি ওয়াক্তের নামাজের পরে মুস্সলীদের স্পর্শ করা জায়গাগুলি পরিষ্কার এবং নির্বীজন করতে হবে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন