কুয়েতে আকামা আইন পরিবর্তন হচ্ছে, সংশোধনী প্রস্তুত

0

কুয়েতে অবৈধ ভিসা ব্যবসার অবসান এবং মানবপাচারের অধ্যায়টিকে স্থায়ীভাবে বন্ধ করার লক্ষ্যে প্রবাসীদের আবাসিক বা আকামা আইন পরিবর্তনের প্রস্তুতি নিচ্ছে দেশটির সরকার।

এ লক্ষ্য গঠিত কমিটি গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিদ্যমান প্রবাসী রেসিডেন্সি আইনের বিধিগুলির মৌলিক পর্যালোচনা করে সংশোধনীগুলো নির্ধারণ করেছে এবং কুয়েতে প্রবাসীদের আবাসকে নিয়ন্ত্রণ করে এমন নতুন আইন চূড়ান্ত করেছে।

আরব টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভিসা বাণিজ্য এবং মানবপাচারের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনে উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আনাস আল-সালেহ এই শক্তিশালী কমিটি গঠন করেছিলেন, যেখানে ফতওয়া ও আইন বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইন বিষয়ক বিভাগ, সিভিল সার্ভিস কমিশন, কুয়েত বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবিগণ এবং স্বাস্থ্য বিভাগ ও বীমা কোম্পানির প্রতিনিধিরা ছিলেন।

বিশ্বস্ত সূত্রে আরব টাইমস জানতে পেরেছে, কমিটির করা সংশোধিত নতুন আইনের খসড়া প্রথমে মন্ত্রিসভায় আলোচনা ও অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে এবং তারপরে পাসের জন্য জরুরি ভিত্তিতে জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করা হবে।

সূত্রগুলি স্পষ্ট করে জানিয়েছে যে, এই সংশোধনীগুলির মধ্যে প্রাইভেট সেক্টরে নিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে তাদের ফাইলের আওতায় নিবন্ধিত প্রবাসী কর্মী বা রেসিডেন্সি আইন লঙ্ঘনকারীদের (আকামাবিহীন বা অবৈধ প্রবাসী) গ্রেপ্তারের ঘটনায় জরিমানা বাড়ানো অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এছাড়া কোম্পানিকে কালো তালিকাভুক্ত করা বা শ্রম ফাইলকে দু’বছরের জন্য কালো তালিকাভুক্ত করা এবং নিয়োগকারী/স্পনসরদের তদন্তের আওতায় আনার বিধিও অন্তভূক্ত করা হয়েছে।

এছাড়াও, নতুন আইনে স্পনসরদের তাদের রেসিডেন্সি আইন লংঘনকারী কর্মচারীদের দেশে পাঠানোর বিমান টিকিট মূল্য এবং ডিটেনশন সেন্টারে রাখা এবং খাবারের ব্যয়ও প্রদান করতে বাধ্য করা হবে।

নতুন আইনে রেসিডেন্সির লঙ্ঘন অর্থাৎ অবৈধ হয়ে যাওয়ার জন্য দৈনিক জরিমানা ২০ কেডি বাড়ানো হয়েছে, তবে ৫০০ কেডি ছাড়িয়ে যাবে না। অবৈধ প্রবাসীকে নির্বাসনের (দেশে পাঠানো) পরে তিন বছরের জন্য কুয়েতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে।

প্রস্তাবিত আইনের বিধান অনুসারে নিয়োগকর্তা বা স্পন্সরের শারীরিক উপস্থিতি এবং হাসপাতালে চিকিত্সা ও ওষুধের ব্যয়সহ স্বাস্থ্যবিমা ছাড়া কোনও প্রবাসীকে আকামা দেওয়া হবে না ।

এছাড়াও, নতুন আইনে ড্রাইভার এবং “মান্ডুব” (কোম্পানি প্রতিনিধি) পেশার এবং যাদের বেতন ৫০০ কেডির চেয়ে বেশি এবং ইস্যু ফি প্রদানের পরিমাণ ২০০ কেডির বেশি তাদের ব্যতীত প্রবাসীদের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করা হবে না। আর ড্রাইভিং লাইসেন্সের মেয়াদ থাকবে আকামা বা ভিসার নির্ধারিত সময়কাল পর্যন্ত।

আইন সংশোধনের জন্য প্রবাসীদের নির্বাসনের প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য জননিরাপত্তা আধিকারিকদের পাশাপাশি ফৌজদারি তদন্ত, অভিবাসন ও আবাস বিষয়ক বিভাগের কর্মকর্তাদের বিস্তৃত ক্ষমতা প্রদান সংশোধনীর মধ্যে রয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...