কুনমিংয়ে বাংলাদেশ কনস্যুলেটে জাতীয় শোক দিবস পালন

0

চীনে কুনমিংয়ে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের।

১৫ আগষ্ট দেশটির কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার মধ্য দিয়ে দিবসটির আনুষ্ঠানিক কার্মসূচী শুরু করেনকনসাল জেনারেল এ এফ এম আমিনুল ইসলাম। এরপর জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে বিনম্র শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এ সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের নিহত সকল শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়।

এ উপলক্ষে আলোচনা সভার শুরুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী পড়ে হয় এবং বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মভিত্তিক প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

আলোচনায় কনসাল জেনারেল এ এফ এম আমিনুল ইসলাম বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা এবং মহান স্বাধীনতার রূপকার। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির মুক্তি ও অধিকার আদায়ে পরিচালিত প্রতিটি গণতান্ত্রিক ও স্বাধিকার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন।

তিনি আরও বলেস, ঘাতকচক্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর নীতি ও আদর্শকে মুছে ফেলতে পারেনি। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ততদিন জাতির পিতার নাম প্রতিটি বাঙালির অন্তরে অক্ষয় হয়ে থাকবে।

কনসাল জেনারেল এ এফ এম আমিনুল ইসলাম ১৯৭৫ এর ১৫ আগষ্ট কালরাতে শাহাদতবরণকারী বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পারিবারের সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন