কাতারে প্রবাসী কর্মীদের জন্য বিশেষ নির্দেশনা

0

কর্মস্থলে প্রবাসীসহ সকল কর্মী/শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে নির্দেশনা জারি করেছে কাতার। দেশটির প্রশাসনিক উন্নয়ন, শ্রম ও সমাজ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

গেল শনিবার এ নিয়ে টুইটারে একটি পোস্ট করে সংশ্লিষ্ট সংস্থাটি। এতে কর্মী/শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত বেশ কিছু বিষয়ে সচেতনতা ও নির্দেশনা দেয়া হয়।

* কোন কর্মী/শ্রমিকের জ্বর বা অন্যান্য উপসর্গ থাকলে কি করতে হবে?
যদি কোন কর্মী/শ্রমিক কাশি, জ্বর বা শ্বাস কষ্টের মতো উপসর্গ দেখা যায়, তাহলে অন্যদের থেকে দূরে থাকা উচিত এবং অবিলম্বে কোভিড ১৯ সংক্রান্ত হটলাইন নাম্বার ১৬০০০ এ যোগাযোগ করতে হবে। জরুরি অবস্থা হলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে অ্যাম্বুলেন্সের জন্য অনুরোধ করতে হবে।

* স্বাস্থ্য কার্ড না থাকলে কী করা উচিত?
বর্তমান সংকটের সময়, স্বাস্থ্য কার্ড / কাতার আইডি (QID) না থাকলেও যে কেউ করোনাভাইরাস পরীক্ষা বা চিকিত্সা গ্রহণ করার সুযোগ পাবে। এক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে এসব সেবা বিনামূল্যে প্রদান করা হচ্ছে।

*কখন স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে যাবে?
একজন কর্মী/শ্রমিকের নিচের কোন লক্ষণ দেখা গেলে নিজেকে অন্যদের থেকে বিচ্ছিন্ন করতে হবে:
১. করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ দেখা দিলে, যেমন-কাশি,জ্বর বা শ্বাসকষ্ট।
২. করোনায় আক্রান্ত কারো সংস্পর্শে আসলে, এমনকি তার সংস্পর্শে আসার সময় তার মধ্যে রোগের কোন লক্ষণ দেখা না গেলেও।
৩. যেসব দেশে এ রোগ ছড়িয়েছে তেমন কোন দেশ থেকে ফিরে আসলে।

এ ব্যাপারে আরো তথ্যের জন্য, জনস্বাস্থ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.moph.gov.qa/ এ ভিজিট করতে হবে।

* কখন একজন কর্মী/শ্রমিককে বিচ্ছিন্ন করে ফেলতে হবে?
যদি কোন কর্মী/শ্রমিকের মধ্যে করোনাভাইরাস আছে এমন লক্ষণ দেখা দেয় এবং তার করোনা আছে এমন পরীক্ষার ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করা হলে সরকারি কর্তৃপক্ষ একজন কর্মীকে বিচ্ছিন্ন বা কোয়ারেন্টিনে রাখতে পারে।

* করোনাভাইরাস-এর জন্য পজিটিভ প্রমাণিত হলে কী করতে হবে?
একজন কর্মী/শ্রমিকের কোভিড-১৯ এর ফলাফলে পজিটিভ পেলে তাকে মুকাইনিস এলাকায় কোয়ারান্টাইন কেন্দ্রগুলোতে স্থানান্তর করা হবে এবং সেখানে বিনামূল্যে সমস্ত প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা, খাদ্য ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

* কোন বাড়িতে যৌথভাবে থাকা কর্মী/শ্রমিকদের বিচ্ছিন্ন করার দায়িত্ব কার?
জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সুপ্রিম কমিটি ফর ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্টের তত্ত্বাবধানে একটি বিশেষায়িত চিকিৎসক দল এক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তিকে বিচ্ছিন্ন করতে দায়িত্ব পালন করবে। এক্ষেত্রে শ্রমিককে বিচ্ছিন্ন করার দায়িত্ব নিয়োগ দেয়া প্রতিষ্ঠান নিতে পারবে না।

* কোন কর্মী/শ্রমিকের বিচ্ছিন্ন করা হলে তিনি কি বেতন পাবেন?
বিচ্ছিন্নতা বা সঙ্গনিরোধে থাকা শ্রমিকেরা তাদের মূল বেতন পাবেন এবং এক্ষেত্রে তাদের অসুস্থতার ছুটিতে থাকার সুবিধা পাওয়ার সুযোগ থাকলেও সব ভাতা পাবেন।

* এমন সংকটে কর্মী/শ্রমিকদের সাথে কোম্পানির চুক্তি বাতিল করার সুযোগ আছে কি?
এক্ষেত্রে নিয়োগকারীদের অধিকার আছে চুক্তি বাতিল করার। তবে শ্রম আইন ও চুক্তির সব শর্ত মেনে তাদের এটি করতে হবে। আগাম নোটিসের পাশপাশি কর্মচারীর প্রাপ্য অর্থ, দেশে ফিরে যাওয়ার টিকিটসহ সংশ্লিষ্ট সুবিধা প্রদান করতে হবে ।

* শ্রমিকদের কি বার্ষিক ছুটি ব্যবহার বা অনাদায়ী ছুটির নেয়ার সুযোগ আছে?
এক্ষেত্রে উভয় পক্ষের সুবিধা মাথায় রেখে যত কম ক্ষতি সাধন হয় সে অনুযায়ী দুই পক্ষের মধ্যে সহযোগী সমাধান হতে পারে। ব্যবসার দীর্ঘ মেয়াদে ক্ষতি ব্যবসা ও কর্মসংস্থানের বিষয়টি বিবেচনায় নিতে হবে। অতএব, নিয়োগকর্তা এবং শ্রমিক বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনায় পরস্পর সম্মত হতে পারে যে অনাদায়ী ছুটি নেয় বা তাদের বাৎসরিক ছুটি নেয়াটা সমীচীন হবে কিনা। এক্ষেত্রে যদি ব্যবসা সমায়িক বন্ধ করা হয় বা কর্মচারীর অন্যক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের সুযোগ না থাকে তবে নিয়োগদাতাদের বাসস্থান ও খাদ্যসহ অন্যান্য সব সুবিধা প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে ।

* সরকারি সীমিত সেবার এই সময়কালে ভিসা বা কাতারি আইডির মেয়াদ শেষ হলে কি করণীয়?
এক্ষেত্রে অনলাইনে ভিসা বা আইডির মেয়াদ বাড়াতে পারবে শ্রমিকরা। এই লিঙ্কটি অনুসরণ করতে হবে: https:/portal.moi.gov.qa/visitvisaextension

QIDs বা কাতারি আইডির মেয়াদ বাড়াতে বা মেয়াদ আছে কিনা দেখতে অনুগ্রহ করে Metrash2 অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে হবে ।

আপ-টু-ডেট তথ্য জানতে অনুগ্রহ করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

* কর্মী/শ্রমিকদের নিয়োগ বা বাসস্থান সম্পর্কে কোন অভিযোগ থাকলে তারা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের 16008 নাম্বারে অথবা [email protected] তে ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারে।

প্রবাসী কর্মী/শ্রমিকদের যে কোন সমস্যায় ৯২৭২৭ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...