ওমানে বাংলাদেশসহ ১৮ দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

0

প্রায় চার মাস পর বাংলাদেশসহ ১৮ টি দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে ওমান। আগামী ১ সেপ্টেম্বর রাত ১২ টা থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

আগতদের ওমানের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত করোনাভাইরাস টিকার উভয় ডোজ গ্রহণ করতে হবে এবং অবশ্যই একটি কিউআর কোডসহ ভ্যাকসিন সনদ বহন করতে হবে। শেষ ডোজ আগমনের সময় থেকে আনুমানিক চৌদ্দ ১৪ দিনের কম না হওয়া প্রয়োজন।

আজ সোমবার করোনা প্রতিরোধে নিয়োজিত সুপ্রিম কমিটির নির্দেশনার ভিত্তিতে এবং মেডিকেল রেসপন্স, পাবলিক হেলথ সেক্টর এবং রয়্যাল ওমান পুলিশের সমন্বয়ে সিভিল এভিয়েশন অথরিটি (সিএএ) এই ঘোষণা দিয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়, ওমানের সকল নাগরিক, প্রবাসী, ওমানের ভিসাধারী, যাদের ওমানে ভ্রমণের জন্য ভিসার প্রয়োজন নেই এবং যারা আগমনের পর ভিসা পেতে পারেন তাদের প্রাক-কোভিড পদ্ধতি অনুসারে সুলতানাতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

সিভিল এভিয়েশন অথরিটি বলেছে যে, সম্পূর্ণ টিকা ছাড়াও বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন থেকে অব্যাহতি পেতে অবশ্যই পিসিআর পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ সনদ দেখাতে হবে।

যদি যাত্রী করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট না নিয়ে থাকে, তাহলে তাদের একটি ইলেকট্রনিক ট্র্যাকিং ব্রেসলেটসহ বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে যেতে হবে যতক্ষণ না নেগেটিভ পিসিআর পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়।

পরীক্ষার ফল পজিটিভ হলে, যাত্রীদের পরীক্ষার তারিখ থেকে শুরু করে ১০ দিনের জন্য বাধ্যতামূলকআইসোলেশনে কাটাতে হবে।

যে যাত্রীরা করোনা থেকে সেরে উঠেছেন কিন্তু ওমানে আগমনের পর পরীক্ষার পজিটিভ ফলাফল হয়েছ, তাদের কোয়ারেন্টিন থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে, যদি তারা প্রমাণ করে যে তারা দেশে নির্ধারিত কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেছেন, যেখানে তারা সুলতানাতে ভ্রমণের আগে সংক্রমিত হয়েছিলেন, ”সিএএ যোগ করেছে।

১৮ বছরের কম বয়সী শিশুদের ওমান ভ্রমণের সময় পিসিআর সার্টিফিকেট উপস্থাপনের প্রয়োজনীয়তা এবং ভ্যাকসিন গ্রহণের প্রমাণ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ এই ১৮ দেশে আটকে পড়া শত শত প্রবাসীর জন্য একটি বিশাল স্বস্রতি খবর।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন