ওমানে পুরো রমজান ২ ঘন্টা শিথিলে রাত্রিকালীন লকডাউন

0

ওমানে পবিত্র রমজান মাসে রাত ৯ টার থেকে ভোর ৪ টা পর্যন্ত ২ ঘন্টা শিথিলে ব্যক্তি ও যানবাহন চলাচল এবং সকল বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধসহ রাত্রিকালীন লকডাউন বলবৎ থাকবে। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) থেকে রমজানের শুরু পর্যন্ত রাত ৮ টার থেকে সকাল ৫ টার মধ্যে রাত্রিকালীন লকডাউনের সময় ব্যক্তি ও যানবাহনের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকবে না। শুধু সকল বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

সোমবার (৫ এপ্রিল) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ হামাউদ ফয়সাল আল বুসাইদীর সভাপতিত্বে করোনভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারি মোকাবিলায় নিয়োজিত সুপ্রিম কমিটির বৈঠকে মহামারি, সুরক্ষা পদ্ধতি এবং বিস্তার রোধে ব্যবস্থাগুলির বিষয়ে আলোচনার পর এ নিয়ে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে।

এছাড়াও জনসমাগমের পরিধি সীমাবদ্ধ করতে, যা মহামারীটির বিস্তার ও তীব্রতার এক মৌলিক কারণ হিসাবে প্রমাণিত, সর্বোচ্চ কমিটি পবিত্র রমজান জুড়ে মসজিদে তারাবীহ জামাত আদায় এবং মসজিদ, তাঁবু বা জনসমাগমের জায়গায় ইফতার-সেহরির মতো সকল ধরণের সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পাশাপাশি সকল সামাজিক, ক্রীড়া এবং সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড এবং যে কোনও গ্রুপ সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ থাকবে।।

বৃহস্পতিবার ৮ এপ্রিল দুপুর ১২টা থেকে ওমানি নাগরিক এবং আকামাধারী প্রবাসী ছাড়া বাকিদের ওমানে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি সুপ্রিম কমিটি সকল নাগরিক এবং প্রবাসীকে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া এই সময়ে বিদেশে ভ্রমণ এড়াতে পরামর্শ দিয়েছে। কমিটি বলেছে, সবাইকে মনে রাখতে হবে অন্যদেশও সম্ভবত চলাচল এবং ভ্রমণকে সীমাবদ্ধ করতে পারে। সুপ্রিম কমিটি বিদেশে অফিসিয়াল মিশনের জন্য বা বহিরাগত ইভেন্টগুলিতে অংশগ্রহণের জন্য ভ্রমণ সীমাবদ্ধ করার পরামর্শ দেয়।

সুপ্রিম কমিটি পবিত্র রমজান মাসে সুলতানাতে মহামারির সাধারণ পরিস্থিতির উন্নয়ন অনুসারে এই সিদ্ধান্তগুলি মূল্যায়ন ও সংশোধন করবে। সুপ্রিম কমিটি জোর দিয়ে বলতে চায় যে, এখন পর্যন্ত গৃহীত সকল প্রক্রিয়াগুলি প্রথমত, সমাজ রক্ষা এবং কোভিড-১৯ রোগীদের স্বাস্থ্যের প্রভাবগুলি হ্রাস করা, যা মৃত্যুর দিকে পরিচালিত করতে পারে। সুপ্রিম কমিটি পুনরায় নিশ্চিত করে যে, নির্দেশনার পদ্ধতিগুলি—ব্যক্তি এবং সংস্থা—নির্দেশাবলী অনুসরণ না করে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য অর্জন করতে পারে না।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন