ওমানে করোনা নির্দেশনা লঙ্ঘনে বেসরকারি কোম্পানির জরিমানাগুলো

0

করোনাভাইরাসের প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে রেখে ধীর ধীর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে নানা স্বাস্থ্যবিধি আর নির্দেশনা জারি করেছে ওমান সরকার।

দেশটির জনশক্তি মন্ত্রণালয় রোববার জানিয়েছে, বেসরকারি খাতের কোম্পানিগুলো যদি সুপ্রিম কমিটির সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করে কার্যক্রম চালায় তবে ১০০ থেকে ৫০০ ওমানি রিয়েল পর্যন্ত জরিমানা গুণতে হবে।

নির্দেশনা লঙ্ঘনের ধরণ অনুযায়ী জরিমানাকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। জনশক্তি মন্ত্রণালয় থেকে জারি হওয়া জরিমানাগুলো হল:

১. যদি কোন কোম্পানির করোনাভাইরাস মোকাবেলা করার কোন বিশেষ পরিকল্পনা না থাকে তবে ৩০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা।

২.: যদি কোন কোম্পানি তাদের কর্মীদের কর্মক্ষেত্রে এবং গণপরিবহনে ফেস মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক না করে তবে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা।

৩. যদি কোন কোম্পানি তাদের কর্মীদের কর্মস্থলে এবং বাসস্থানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবরাহ না করে তাহলে এই কোম্পানিকে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে। স্যানিটাইজারে অ্যালকোহলের মাত্রা ৬০ শতাংশ থাকাটা বাধ্যতামূলক।.

৪. কোন কোম্পানি তাদের কর্মীদের দৈনন্দিন তাপমাত্রা রেকর্ড না করলে তাদের ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে।

৫. কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছে এমন সন্দেহভাজন শ্রমিকদের রিপোর্ট করার কোন মাধ্যম না থাকলে কোম্পানিগুলোকে ৫০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে।

৬. কর্মক্ষেত্রে, ক্যান্টিনে এবং ওয়েটিং এলাকায় যদি সামাজিক দূরত্বের চিহৃ না থাকে তবে কোম্পানিগুলোকে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে।

৭. কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন ভাষায় কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সচেতনতামূলক পোস্টার না থাকলে কোম্পানিগুলোকে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা জরিমানা করা হবে।

৮. জীবাণুনাশক সরঞ্জাম এবং সামগ্রী না থাকলে কোম্পানিগুলোকে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা এই জরিমানা করা হবে।

৯. যে সব কোম্পানির বাসস্থানে কর্মী ও দর্শনার্থীদের চলাচল ও প্রবেশ পর্যবেক্ষণ করার কোন ব্যবস্থা ধাকবে না তাদের ৫০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে।

১০. কোন কোম্পানি যদি তাদের কর্মীদের করোনা ভাইরাস ছড়ানোর বিষয়ে সতর্কতামূলক প্রশিক্ষণ না দেয় তাহলে কোম্পানিগুলোকে ১০০ ওমানি রিয়াল জরিমানা করা হবে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...