ওমানের চার বিমানবন্দরে মার্চ পর্যন্ত ৩৫ লাখ ছাড়িয়েছে যাত্রী

0

২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষ পর্যন্ত ওমানের মাসকাট, সালালাহ, সোহার এবং ডুকুম বিমানবন্দর দিয়ে যাতায়াত করা মোট যাত্রীর সংখ্যা ৩.৫৭ মিলিয়ন বা ৩৫ লাখেরও অধিক। একই সময়ে মাসকাট, সালালাহ এবং সোহার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ২৩ হাজার ৮১৫ টি ফ্লাইট চলাচল করেছে।

ওমানের জাতীয় পরিসংখ্যান ও তথ্য কেন্দ্র সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিবেদন এ তথ্য ওঠে আসে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মোট যাত্রী সংখ্যা গেল বছরের মার্চের তুলনায় এ বছর ২০% কমে ৩.২০ মিলিয়নে নেমে এসেছে। আর এই বিমানবন্দরে মোট ফ্লাইটের সংখ্যা গেল বছরের মার্চ থেকে ১৪.৯% কমে ২৮ হাজার ৭৭৫টি থেকে ২৪ হাজার ৪৯৯ টিতে নেমে এসেছে। মাসকাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সংখ্যা ২০২০ এর মার্চ পর্যন্ত রেকর্ড করা হয়েছে ২২ হাজার ৩১৭ টি যা ২০১৯ এ একই সময়ের তুলনায় ১৫.৩ শতাংশ কমে গেছে।

এদিকে, ২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষে মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মোট আন্তর্জাতিক যাত্রী সংখ্যা ২০.৪ শতাংশ কমে ২.৯৬ মিলিয়নে পৌঁছেছে। এর মধ্যে ছিল ১.৪৮ মিলিয়ন যাত্রী বিমানবন্দরে এসেছে আর ১.৪৭ মিলিয়ন যাত্রী এখান থেকে প্রস্থান করেছে আর ৪ হাজার ৭৬৯ জন যাত্রী ট্রানজিট নিয়েছে।

অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের ক্ষেত্রে ২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষে মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তা ১০.৬% কমে ২,১৮২টি ফ্লাইটে নেমে এসেছে, যা ২০১৯ সালের একই সময়ের ছিল ২,৪৪১টি ফ্লাইট। অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের আগমন এবং প্রস্থান যথাক্রমে ১০.৯ শতাংশ এবং ১০.৩ শতাংশ কমে গেছে। আর অভ্যন্তরীণ রুটে মোট যাত্রী সংখ্যা ২০২০ সালের মার্চ মাসে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৪.৭ শতাংশ কমে গেছে। গেল বছর মার্চ পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ যাত্রী ছিল ২ লাখ ৭৮ হাজার ৫২ জন যা এ বছর ২ লাখ ৩৭ হাজার ২০৬ জনে নেমে এসেছে।

মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান
মাস্কাট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান

জাতীয় পরিসংখ্যান ও তথ্য কেন্দ্র প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালের একই সময়ের তুলনায় ২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষে সালাহ বিমানবন্দরে মোট যাত্রীর সংখ্যা ১৫.৭ শতাংশ কমে ২লাখ ৮৯ হাজার ৩২৯ জনে দাঁড়িয়েছে। সালালাহ বিমানবন্দরে মোট ফ্লাইট সংখ্যা মার্চ ২০১৯ সালে ২ হাজার ৭৯৪ টি ফ্লাইটের তুলনায় ২ হাজার ৩৫০ ফ্লাইটে ১৫.৯ শতাংশ কমে গেছে।

সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মোট আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের সংখ্যা ২০২০ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত ২০.৮ শতাংশ কমে ৯৬৪ টি হয়। অন্যদিকে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের সংখ্যা ১২.১ শতাংশ কমে ১ হাজার ৩৮৬টি ফ্লাইটে নেমে যায়। আন্তর্জাতিক যাত্রী সংখ্যা ১৬.১ শতাংশ কমে ১ লাখ ১৩ হাজার ৮৫৮ যাত্রী হয়েছে, আর অভ্যন্তরীণ যাত্রী সংখ্যা ১৫.৪ শতাংশ কমে ১ লাখ ৭২ হাজার ৪৭১ জন হয়েছে।

প্রতিবেদন বলা হয়, ২০১৯ সালের মার্চের তুলনায় ২০২০ সালের মার্চে সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মোট যাত্রীর সংখ্যা ১৫.৭ শতাংশ কমে ২ লাখ ৮৯ হাজার ৩২৯ জনে দাঁড়িয়েছে। সালাহ বিমানবন্দরে মোট ফ্লাইট সংখ্যা মার্চ ২০১৯ এর তুলনায় ১৫.৯ শতাংশ কমে ২ হাজার ৭৯৪ থেকে ২৩৫০ এ নেমে গেছে।

সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান
সালালাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, ওমান

সালালাহ বিমানবন্দরে মোট আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের সংখ্যা ২০২০ সালের মার্চ মাসে ২০১৯ সালের একই সময়ের তুলনায় ২০.৮ শতাংশ কমে ৯৬৪টি ফ্লাইটে নেমে এসেছে আর অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের সংখ্যা ১২.১ শতাংশ কমে ১,৩৮৬টি ফ্লাইটে নেমে এসেছে। আন্তর্জাতিক যাত্রী সংখ্যা ১৬.১ শতাংশ কমে ১১৩৮৫৮ এ নেমে এসেছে আর অভ্যন্তরীণ যাত্রী সংখ্যা ১৫.৪ শতাংশ কমে ১ লাখ ৭২ হাজার ৪৭১ এ নেমে এসেছে।

তবে সোহার বিমানবন্দের ২০১৯ এর মার্চের তুলনায় ২০২০ এর মার্চে যাত্রীর মোট সংখ্যা বেড়েছে যেখানে গেল বছর যাত্রী ছিল ৪৮ হাজার ৭১৬ জন এ বছর তা ৬৮ হাজার ৪১৭ জনে দাঁড়ায়। ২০১৯ সালের মার্চ মাসের শেষে ৫২৪টি ফ্লাইট চলাচল হলেও ২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষে সোহার বিমানবন্দরে মোট ফ্লাইটের সংখ্যা ১.৯ শতাংশ বেড়ে ৫৩৪টি ফ্লাইটে উন্নীত হয়েছে।

২০২০ সালের মার্চ মাসের শেষে ডুকুম বিমানবন্দরে মোট যাত্রীর সংখ্যা গেল বছরের তুলনায় ৩ শতাংশ বেড়ে ১৪ হাজার ৪৯৯ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে ডুকম বিমানবন্দরে মোট ফ্লাইটের সংখ্যা ছিল ১৫২ টি যা ২০১৯ সালে ছিল ১৪৮টি।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...