এবার উড়োজাহাজে পেঁয়াজ আমদানি

0

সপ্তাহের ব্যবধানে তিন দফায় বেড়ে পেঁয়াজের দাম এখন ২৫০ টাকা কেজি। আকাশচুম্বী এই মূল্যকে নিয়ন্ত্রণে আনতে এবার আকাশপথেই পেয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত নিল সরকার।

রোববার (১৭ নভেম্বর) থেকে জরুরিভিত্তিতে কার্গো উড়োজাহাজে করে দেশে পেঁয়াজ আমদানি করা হবে। সরকারিভাবে টিসিবি তুরস্ক এবং বেসরকারি খাতের এস আলম গ্রুপ মিশর থেকে এই পেঁয়াজ আনবে।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে বাণিজ্য সচিব ড. জাফর উদ্দিন সরকারি এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত বাজার স্বাভাবিক না হবে, ততদিন এয়ার কার্গোতে পেঁয়াজ আমদানি করা হবে।

সচিব আরও জানান, সরকারিভাবে পেঁয়াজ আমদানির জন্য এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ের একজন উপসচিব মিশর গেছেন এবং অপর একজন উপসচিবকে তুরস্কে পাঠানো হচ্ছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশে পেঁয়াজের সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে টিসিবির মাধ্যমে সরাসরি তুরস্ক থেকে, এস আলম গ্রুপ মিশর থেকে, বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আফগানিস্থান ও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে জরুরিভিত্তিতে কার্গো উড়োজাহাজ যোগে পেঁয়াজ আমদানি করবে।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। অতি অল্প সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ বাজারে সরবরাহ করা সম্ভব হবে। এছাড়া সমুদ্র পথে আমদানিকৃত পেঁয়াজ বাংলাদেশের পথে রয়েছে, পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় এই চালান খুব শিগগিরই বাংলাদেশে পৌঁছাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে টেকনাফ স্থলবন্দর, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে পেঁয়াজ পরিবহনে কয়েকদিনের জন্য সমস্যা হয়েছিল। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য জরুরিভিত্তিতে উল্লিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, খুব কম সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ বাজারে চলে আসবে এবং মূল্য স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।