হাতে ঠেলা রেল ট্রলিতে দেশে ফিরলেন রুশ কূটনীতিক দল

0

করোনা মহামারি প্রতিরোধে উত্তর কোরিয়ার কঠোর অবস্থানের কারণে দেশটিতে থাকা বিদেশী কূটনীতিকদের পড়তে হচ্ছে চরম বিপাকে।

সম্প্রতি হাতেঠেলা রেল ট্রলিতে করে সীমান্ত পার হতে হয়ে নিজ দেশে যেতে পেরেছে রুশ কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের একটি দলকে। আট সদস্যের দলটি ট্রেন এবং বাসে করে ৩৪ ঘণ্টা ভ্রমণে সীমান্ত এলাকায় পৌঁছার পর হাতেঠেলা ট্রলিতে প্রায় এক কিলোমিটার রেললাইন পাড়ি দিয়ে রুশ সীমান্ত পাড়ি দেন ।

মহামারী করোনার কারণে সারা বিশ্ব থেকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন করে রেখেছে উত্তর কোরিয়া। সংক্রমণের শুরুতেই ট্রেন ও বাস চলাচল নিষিদ্ধ করে উত্তর কোরিয়া। বেশিরভাগ আন্তর্জাতিক যাত্রীবাহী ফ্লাইটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। পিয়ংইয়ং ছেড়ে যেতে রুশ কূটনীতিকদের এই অস্বাভাবিক ট্রলিযাত্রা করা ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প খোলা ছিল না।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক ফেসবুক পোস্টে বলা হয়েছে, ‘এক বছরের বেশি সময় ধরে যাত্রীবাহী যানবাহন ও সীমান্ত বন্ধ থাকায় বাড়ি ফিরতে দীর্ঘ এবং কঠিন যাত্রা বেছে নিতে হয়।’ ওই পোস্টের সঙ্গে শেয়ার করা ছবিতে দেখা গেছে কূটনীতিকরা ট্রলিতে স্যুটকেস রেখে তা হাতে ঠেলে নিয়ে যাচ্ছেন।

ট্রলিটির ‘মূল ইঞ্জিনের’ ভূমিকায় ছিলেন দূতাবাসের থার্ড সেক্রেটারি ভ্লাদিসলাভ সরোকিন। তিনি তুমেন নদীর রেলসেতু ওপর নিয়ে ট্রলিটি ঠেলে রাশিয়ায় নিয়ে যান। এর আগে রুশ সীমান্তে পৌঁছাতে গ্রুপটি ৩২ ঘণ্টার ট্রেন যাত্রা এবং দুই ঘণ্টার বাসযাত্রা করে।

এই যাত্রায় তাদের মধ্যে সরোকিনের তিন বছর বয়সি মেয়েও ছিল। সীমান্ত পার হওয়ার পর রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা তাদের ভ্লাদিভোস্টক বিমানবন্দরে পৌঁছে দেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন