ইতালি ফিরতে বাংলাদেশিদের জন্য তার্কিশ এয়ারলাইন্সের বিশেষ ব্যবস্থা

0

ইতালি সরকারের নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার মাধ্যমে আটকেপড়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার সুযোগ কাজে লাগাতে তার্কিশ এয়ারলাইন্সের তাদের যাত্রীদের পূর্ববর্তী বাতিল ফ্লাইটের টিকেটের তারিখ পরিবর্তন করে নতুন যাত্রা তারিখ প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিমানসংস্থাটির বাংলাদেশ অফিসের বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়ে বলা হয়, ঢাকাস্থ ইতালি দুতাবাসের প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের ৯ জুলাইয়ের আগে ইস্যুকৃত যেকোন বৈধ রেসিডেন্ট কার্ডধারী বাংলাদেশি নাগরিক ইতালি প্রবেশের দিন হতে নুন্যতম ৭২ ঘন্টার ভিতরে গ্রহণ করা কোভিড-১৯ মুক্ত মেডিকেল সনদ নিয়ে সে দেশে ভ্রমণ করতে পারবে। ভ্রমনকারী যাত্রীদের দেশটিতে প্রবেশের দিন হতে ১৪দিন নির্ধারিত স্বাস্থ্য সুরক্ষা কতৃপক্ষের নিয়ন্ত্রনে কোয়ারানটাইন পালন বাধ্যতামুলক। সেইসাথে বিমানবন্দর থেকে নিজ নিজ অবস্থানে যেতে নাগরিক যাত্রী সুবিধার বাস বা ট্রাম ব্যবহার না করে ব্যাক্তিগত বাহন ব্যবহার করার নির্দেশনা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এই সব শর্ত পালন করতে সক্ষম ইতালি ফিরতে পূর্ববর্তী বাতিল ফ্লাইটের যাত্রীদের বৈধ রেসিডেন্ট কার্ডের মেয়াদের ভিত্তিতে অগ্রাধিকার তালিকা প্রনয়ন করে সেবা প্রদান করবে তার্কিশ এয়ারলাইন্স । সেক্ষেত্রে প্রথম পর্যায়ে শুধুমাত্র আগামী ৩০ নভেম্বর আগে মেয়াদ শেষ হতে চলা যাত্রীদের নিজ নিজ ট্রাভেল এজেন্সি কিংবা ঢাকাস্থ তার্কিশ এয়ারলাইন্সের অফিসে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে রেসিডেন্ট কার্ডের মেয়াদ শেষ হতে থাকা সকল যাত্রীর টিকেট পরিবর্তন করে দিতে তার্কিশ এয়ারলাইন্স বধ্য পরিকর।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, যাত্রীদের সুস্বাস্থ্য, সুরক্ষা ও মঙ্গলকে অগ্রাধিকার দিয়েই করোনা পরবর্তী সূচীতে বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত নেটওয়ার্কের সকল দেশের সাথে মিল রেখে ফ্লাইট পরিচালনা করে চলেছে তার্কিশ এয়ারলাইন্স। সংক্রমনের পরিধি নিয়ন্ত্রনে আসতে থাকা দেশ গুলোতে পূনরায় বিমান চলচলের পরিকল্পনার আলোকে গত ১৭ জুলাই ২০২০ তারিখ ঢাকা থেকে সপ্তাহে ৩টি করে ফ্লাইট চালু করেছিল তুরস্কের পতাকাবাহী বিমান সংস্থাটি।

বর্তমানে সপ্তাহের প্রতিদিন ঢাকা থেকে ১টি করে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করা হচ্ছে। এছাড়া যাত্রীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিবেচনায় প্রতিটি ফ্লাইটে বিতরন করা হচ্ছে মাস্ক, সেনেটাইজার ও ওয়েট টিস্যু সহ বিশেষ হাইজেনিক কিট।

১৯৩৩ সালে প্রতিষ্ঠিত তুরস্কের পতাকাবাহী বিমান তার্কিশ এয়ারলাইন্স ৩৩৮ বিমানের বহর নিয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছে যাত্রী ও কার্গো বিভাগ দুটিতে। এর সদর দপ্তর ও হাব তুরস্কের ইস্তানবুলে। তার্কিশ এয়ারলাইন্স তুরস্কের অভ্যন্তরে ৪১টি ডমেস্টিক এবং আন্তর্জাতিক ২৫৭টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করে। যাত্রী পরিবহন গন্তব্যের হিসাবে পৃথিবীর ১ম অবস্থানে থাকা বিমানটি ১২৪টি দেশের মোট ৩০৬টি গন্তব্যে যাতায়াত করে থাকে। আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থা স্টার এলাইয়েন্স এর সদস্য তাকিশ এয়ারলাইন্স পরপর ৬বার ইউরোপের ১ নাম্বার বিমান পুরস্কারে ভুষিত হয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।