ইতালি থেকে যাত্রী এনে নিষেধাজ্ঞা ভাঙ্গল কাতার এয়ারওয়েজ

0

নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই করোনাভাইরাস উপদ্রুত ইতালি থেকে ৯৬ জন যাত্রীকে বাংলাদেশ নিয়ে এসেছে কাতার এয়ারওয়েজ। সোমবার দুপুর ১২টা থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত ইউরোপ থেকে বিমান চলাচলে নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশ।

কাতারের জাতীয় পতাকাবাহী বিমান সংস্থাটির কিউআর-৬৩৪ ফ্লাইটটি ইতালির ৬৮ জনসহ জার্মানি ও ইউরোপের অন্যান্য দেশের মোট ৯৬ জন যাত্রী নিয়ে সোমবার সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

নিষেধাজ্ঞার ব্যত্যয় ঘটিয়ে যাত্রীদের বাংলাদেশ ঢােকার অনুমতি দেয় বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ বেবিচক।

রবিবার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিল, সোমবার দুপুর ১২টা থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত লন্ডন ছাড়া ইউরোপ থেকে যাত্রী নিয়ে কোন বিমানসংস্থা বাংলাদেশে ঢুকতে পারবে না। কোনও বিমানসংস্থা এরপরও যাত্রী নিয়ে আসে তবে তাদের খরচেই ফেরত পাঠানো হবে।

তার আগে শনিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, রবিবার রাত ১২টার পর থেকে দুই সপ্তাহের জন্য যুক্তরাজ্য বাদে ইউরোপের দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে ঢোকায় নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

এমন আদেশের পরও ব্যত্যয় কেন ঘটলো, জানতে চাইলেবেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, ‘পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে আমরা একটি ফ্লাইট ঢোকার অনুমতি দিয়েছে। আমরা ইউরোপ থেকে যাত্রী আনতে নিষেধ করেছিলাম। এই ফ্লাইটটি যাত্রী নিয়ে আসার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি চায়, মন্ত্রণালয় অনুমতি দিয়েছে। তাদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের শর্তে এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, কাতারের সিভিল এভিয়েশনকেও এ ব্যাপারে অসন্তোষের কথা জানানো হবে। এরপর আর কোনও ফ্লাইটকে কোনোভাবেই নামতে দেওয়া হবে না।

এই ফ্লাইটে আসা সকল যাত্রীকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ।

তিনি বলেন, তাদের হজ ক্যাম্পে নিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। তাদের উপসর্গ না থাকলে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...