ইতালির লাৎসিও অঞ্চলে সকল বাংলাদেশির করোনা পরীক্ষার উদ্যোগ

0

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি ‘ক্লাস্টার’ সংক্রমণের ঘটনার প্রেক্ষিতে ইতালির কেন্দ্রীয় অঞ্চল লাৎসিওর প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঢালাও পরীক্ষা করানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে ইতালিতে কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকে লাৎসিও অঞ্চলে এ পর্যন্ত আট হাজার ব্যক্তির দেহে এই ভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে, যা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত লোমবারদিসহ উত্তরাঞ্চলীয় অন্যান্য এলাকার চেয়ে অনেক কম।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক দিনে নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশি রয়েছেন। তাদের মধ্যে সর্বশেষ শুক্রবার একজনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে, যিনি মাত্রই দেশ থেকে ফিরেছেন।

লাৎসিও’র স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান আলেসসিও দি আমাতো বলেছেন, আগামী সোমবার থেকে শুধু বাংলাদেশি অভিবাসীদের জন্য একটি পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হবে।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের বড় সংখ্যায় সেখানে গিয়ে পরীক্ষা করানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। পরীক্ষার জন্য কোনো অর্থ দেওয়া লাগবে না বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ইতালির জাতীয় পরিসংখ্যান ইনস্টিটিউট আইএসটিএটি-এর তথ্য মতে, ইউরোপের দেশটিতে বসবাসকারী এক লাখ ৪০ হাজার বাংলাদেশির মধ্যে লাৎসিও অঞ্চলে থাকেন ৩৭ হাজারের মতো। তাদের মধ্যে প্রায় ৩২ হাজারই থাকেন রাজধানী রোমে।

এক বিবৃতিতে লাৎসিও’র স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান বলেন, “বাংলাদেশ থেকে যারা ফিরবেন তাদের জন্য কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা হবে। আমরা এয়ারপোর্ট কোম্পানি ও চিকিৎসকদের নিয়ন্ত্রণ জোরদার করতে বলেছি।”

ফেব্রুয়ারিতে যখন ইতালিতে ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে সে সময় বাংলাদেশে এই রোগ পৌঁছায়নি। ওই সময় ইতালিসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে দলে দলে প্রবাসীরা ফিরতে শুরু করে।

পর্তুগালপ্রবাসী তারুণ্যের সঙ্গে আলাপন

পর্তুগালপ্রবাসী তারুণ্যের সঙ্গে আলাপনসঞ্চালনায় : আহমেদ তোফায়েল- সাংবাদিক ও উপস্থাপকঅতিথি :ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, ফ্রিল্যান্স লেখক, পর্তুগালরনি হোসাইন, চাকরিজীবী, পর্তুগালসাইফুল হক, তরুন উদ্যোক্তা, পর্তুগাল তানভীর আলম জনি, তরুন উদ্যোক্তা ,পর্তুগাল৩ জুলাই, শুক্রবার – পর্তুগাল : বিকেল ৫ টা , ইউরোপ : সন্ধ্যা ৬ টা, বাংলাদেশ : রাত ১০ টা

Posted by AkashJatra on Friday, July 3, 2020

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...