ইতালিতে করোনাভাইরাসে প্রথম বাংলাদেশির মৃত্যু

0

ইতালিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তার নাম গোলাম মাওলা। তিনি মিলান শহরে বিজুত্তেরিয়ার ব্যবসায়ী ছিলেন। বয়স হয়েছিল ৫০ বছর ।

প্রায় দু’সপ্তাহ স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার গভীর রাতে মারা যান তিনি। তার গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলায়।

জানা গেছে, ব্যবসায়ী ইতালির মিলান ট্রেন স্টেশন সংলগ্ন ভিয়া সেত্তেমব্রে এলাকায় পরিবার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। এখানে দীর্ঘদিন তিনি বিজুত্তেরিয়া (সিলভার, এমিটি সোনার গহনার দোকান) ব্যবসা করতেন।

দু’সপ্তাহ আগে তিনি জ্বর ও সর্দিতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে যান। পরে তার শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। পরবর্তীতে তাকে স্থানীয় নিগুয়ারদা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাতে মারা যান তিনি।

তিনি স্ত্রী, এক ছেলে এবং দুই মেয়ে রেখে গেছেন। পরিবারের সবাই ইতালিতেই আছেন বলে জানা গেছে।

ইতালি নভেল করোনাভাইরাসে একদিনে আরও ৬২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৩২ জনে।

এক মাস আগে ইউরোপের এই দেশটিতে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর প্রতিদিনই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। এরইমধ্যে সেখানে মৃত্যু নতুন এই ভাইরাসের উৎসস্থল চীনকে ছাড়িয়ে গেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, শুক্রবারের আগ পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ ৪৭৫ জনের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে। এবার মৃত্যুর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে ১৮ শতাংশের বেশি বেড়ে ৬২৭ জন হল।

চীনে ব্যাপকভাবে সংক্রমণের সময় এই ভাইরাস নিয়ে যখন বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক তৈরি হয়েছিল তখনও দেশটিতে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা ১৫০ এর বেশি হয়নি।

ইতালিতে এই ভাইরাসে মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে নতুন আক্রান্তের সংখ্যাও। দেশটিতে বিগত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচ হাজারের বেশি মানুষের এই রোগ ধরা পড়েছে, মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৭ হাজার ২১ জনে। আগের দিনের তুলনায় নতুন রোগী বেড়েছে ১৪ দশমিক ৬ শতাংশ।

সবচেয়ে বেশি উপদ্রুত ইতালির উত্তরাঞ্চীয় লোমবারডির পরিস্থিতি এখনও শোচনীয়। সেখানে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ২৬৪ জন, আর মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৫৪৯ জনের।

ইতালিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তদের মধ্যে পাঁচ হাজার ১২৯ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়েছেন। এখন নিবিড় পরিচর্যায় আছেন দুই হাজার ৬৫৫ জন, যেখানে আগের দিন এই সংখ্যা ছিল দুই হা্জার ৪৯৮।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...