আমিরাতে প্রবাসী সংবাদযোদ্ধা মামুনের করোনাজয়

0

করোনাজয় করলেন প্রবাসে এই ভাইরাস প্রতিরোধ যুদ্ধের একজন সাহসী যোদ্ধা। তিনি প্রবাসী সংবাদযোদ্ধা মামুনুর রশীদ, এনটিভির সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রতিনিধি ও বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র সিনিয়র সহ সভাপতি।

আমিরাতে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে আমিরাতপ্রবাসী বাংলাদেশিদের স্বাস্থ্যসেবা ও খাদ্য বিতরণে যুক্ত থেকে হয়েছিলেন করোনাক্রান্ত। এরপর হাসপাতালে করোনাজয়ের যুদ্ধ, অবশেষ সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন।

বৃহস্পতিবার ( ১৮ জুন) সন্ধ্যায় দুবাইয়ের ইন্টারন্যাশনাল মর্ডান হাসপাতাল থেকে করোনামুক্ত হয়ে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেন তিনি।

১৫ দিন আগে করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মামুন। সেখানে কভিড-১৯ পরীক্ষায় পজিটিভ আসে তার। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় চিকিৎসাসেবা দেয়।

গত ১৪ ও ১৬ জুন পরপর দুটি পরীক্ষায় তার ফলাফল নেগেটিভ আসলে বৃহস্পতিবার ছাড়পত্র নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেন তিনি। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে।

গত এপ্রিল-মে মাসে দুবাইয়ের নাইফ ও আলরাস এরিয়ায় লকডাউন চলাকালে ১৯ জনের একটি টিম নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে সেখানে বাংলাদেশিদের স্বাস্থ্যসেবা ও খাদ্য বিতরণে কাজ করেন মামুনুর রশীদ।

নিজের অভিজ্ঞতার আলোকে করোনামুক্তির ব্যাপারে পরামর্শ দিতে গিয়ে মামুনুর রশীদ আকাশযাত্রাকে বলেন, “আক্রান্ত ব্যক্তি যেন মনোবল না হারান, শুরুতে ভয় পেয়ে গেলে সুস্থ হতে সময়ের প্রয়োজন হয় অনেক সঙ্গে জীবনের ঝুঁকিও বেশি।”

তিনি আরও বলেন, কভিড-১৯ হতে মুক্তি পেতে হলে দিনে অন্তত একবার ৫ মিনিট গরম পানির ভাপ নেওয়া, ৩ হতে ৪ বার চা বা কফি অথবা গরম পানি পান করতে হবে। বিশেষ করে ভিটামিন সি ও ডি জাতীয় ফল, সঙ্গে আদা লেবু খেতে পারেন।”

মারণঘাতি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ফিরে আসার জন্য তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকার,স্বাস্থ্য বিভাগ এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি স্বজন, সহযােদ্ধা, প্রবাসীসহ সুস্থতা কামনাকরী সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

করোনাজয়ী প্রবাসের সংবাদযোদ্ধা মামুনুর রশীদকে আকাশযাত্রা পরিবার থেকে অভিনন্দন। সে সঙ্গে প্রত্যাশা পেশার দায়িত্বের পাশাপাশি তিনি আগের মতোই করোনা প্রতিরোধ যুদ্ধ ও মানবতার সেবায় সামিল হবেন এবং করোনামুক্তি নিয়ে তার পরামর্শ অন্যরাও অনুসরণ করবেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...