আমিরাতে প্রবাসীদের কম খরচে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে ‘আমার ক্লিনিক’

0

সংযুক্ত আরব আমিরাতে যেকোনো স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে স্বাস্থ্যসেবা নেওয়াটা প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়ে। কেননা বিদেশি চিকিৎসকদের কাছে বিদেশি ভাষায় কথা বলতে বা রোগের বর্ণনা করতে না পারায় সঠিকভাবে চিকিৎসা পায় না প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তাই অনেক প্রবাসীকে চিকিৎসা সেবার জন্য ছুটে যেতে হয় বাংলাদেশে। অনেকে আর্থিক অভাবে রোগ-বালায় নিয়েই কষ্ঠের প্রবাস জীবন কাটাছেন।

এই পরিস্থিতি থেকে প্রবাসীদের মুক্তি দেওয়ার লক্ষ্যে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে চিকিৎসা সেবা খাতে উদ্যোগী হয়েছেন ৪ প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ী। তাদের হাত ধরেই চালু হয়েছে প্রবাসীদের জন্য স্বল্পমূল্যের চিকিৎসা কেন্দ্র “আমার ক্লিনিক”, যেখানে দুঃস্থ-অসহায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবার সুযােগ রাখা হয়েছে।

গত বছরের মার্চে করোনা মহামারি সময় আমিরাতের তৃতীয় সর্বাধিক জনবহুল শহর শারজায় প্রথম চিকিৎসা কেন্দ্রটি চালুর মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে ‘আমার ক্লিনিক। সেই ধারাবাহিকতায় শনিবার (২০ আগস্ট) আমিরাতের পঞ্চম বৃহত্তম শহর ও ক্ষুদ্রতম প্র্রদেশে আজমানে ‘আমার ক্লিনিক’ নতুন একটি চিকিৎসা কেন্দ্র চালু হয়েছে ।

আজমান শহরের নিউ সানাইয়ায় স্থাপিত নতুন শাখার উদ্বোধন করেন দুবাই ও উত্তর আমিরাতে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন।

ইসমাইল গনির সঞ্চালনায় উদ্ধানী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ উইমেন এ্যাসোসিয়েশন দুবাই ও উত্তর আমিরাতের সভাপতি আবিদা হোসেন, ক্লিনিকের সি ই ও ইমাম হোসেন, ম্যানেজিং পার্টনার আবু নাইম চৌধুরী ও মোহাম্মদ কায়ছার আযাদ ৷

উপস্থিত ছিলেন মনসুর সবুর, মোহাম্মদ শাফায়াত, মকবুল হোসেন, ইমাম হোসেন জাহিদ পারভেজসহ মনসুর সবুর,মোহাম্মদ শাফায়াত, মকবুল হোসেন, ইমাম হোসেন জাহিদ পারভেজসহ প্রবাসী বাংলাদেশি বিশিষ্টজনেরা।।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, উদ্ধোধন উপলক্ষে নতুন স্বাস্থ্য কেন্দ্রেটিতে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনামূল্যেচিকিৎসা পরামর্শ দেওয়া হবে। দেওয়া হবে।

“আমার ক্লিনিকের” দুটি চিকিৎসা কেন্দ্রে এখন চিকিৎসক ও সেবিকা মিলিয়ে প্রায় ২০জনের অধিক বাংলাদেশি কাজ করছেন। প্রবাসীদের রোগের চিকিৎসা সেবার বিবেচনায় খুব সহসা আরও চিকিৎসক-সেবিকাসহ আরও কিছু বাংলাদেশি জনশক্তি নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

উদ্যাক্তারা জানান, সাফল্যের ধারাবাহিকতায় আমিরাতের প্রতিটি প্রদেশে ‘আমার ক্লিনিক’-এর অন্তত একটি শাখা চালুর পরিকল্পনা রয়েছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন