আমিরাতে করোনাক্রান্তদের জন্য এ্যাস্টার হাসপাতালের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

0

কোভিড-১৯ রোগীদের সার্বিক সহায়তার জন্য হাসপাতাল কেন্দ্রিক পরিচালিত সংযুক্ত আরব আমিরাত একটি বিশেষ সহায়ক গ্রুপ চালু করা হয়েছে ।এই গ্রুপের লক্ষ্য কোভিড -১৯ রোগীদের “সর্বজনীন কল্যাণ” নিশ্চিত করা এবং তাদের শারীরিক ও মানসিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সাহায্য সহযোগিতা করা।

রোগীদের মধ্যে তৈরি হওয়া ভয়,উদ্বিগ্নতা,মানসিক চাপকে বিশেষভাবে সমাধান করা Cosmos নামক সহায়তা দলটির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। Cosmos এর মানে অর্থ হলো ‘Circle of Strength, Master of Self’

রোগিদের বিচ্ছিন্নভাবে একাকিত্ত জীবন উপভোগকে পুনরুদ্ধারে উদ্বুদ্ধ করতে মনোনিবেশ করবে, তাদের এই পুনরুদ্ধার সেশনের মাধ্যমে মানসিক আঘাত, উদ্বেগ, হতাশা এবং একাকীত্বের সাথে মোকাবিলা এবং তাদের পিজিক্যাল থেরাপি, পুষ্টি বিষয়ক পরামর্শ এবং মানসিক স্বাস্থ্য সহায়তার মাধ্যমে পুনর্বাসনে সহায়তা করবে বলে জানান সংস্থাটি ।

Cosmos এর মাধ্যমে হাসপাতালতে ভর্তি কোভিড -১৯ রোগীদের একে অপরের সাথে সংযোগ স্থাপন, তাদের চিন্তাভাবনা, শিক্ষামূলক অধিবেশনে অংশ নেওয়া, চিকিৎসা দেওয়া। সে সঙ্গে হাসপাতাল একাকিত্ত দূরীকরণে জন্য একটি ডিজিটাল এপ্লিকেশন এর মাধ্যমে পরিবারের সদস্যদের সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করা।

এ্যাস্টার হাসপাতালের সিইও ডা. শেরবাজ বিচু এ্যাস্টার হাসপাতালে আয়োজিত এক পরামর্শ সভায় বলেন “আমরা দেখেছি যে আমাদের রোগীরা বিভিন্ন স্তরের মানসিক চাপের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, পরিবার এবং প্রিয়জনদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তাদের মধ্যে অনেকে হলেন স্বদেশ থেকে ফিরে আসা প্রবাসী যারা নিয়মিত পরিবার নিয়ে চিন্তিত থাকেন। তাদের সংবেদনশীল মানসিক চাপ কমানোর জন্য অনুপ্রেরণা এবং সমর্থন যুগানো যা এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার একটি প্রক্রিয়া।”

“যে রোগীদের দীর্ঘদিন ধরে নিবিড় যত্ন সহ্য করতে হয়েছে তাদের প্রায়ই মানসিক সুরক্ষা ও সহায়তার প্রয়োজন যার মাধ্যমে তারা শক্তি এবং মনস্তাত্ত্বিক স্বাভাবিকতা ফিরে পেতে সক্ষম হয়।সেই লক্ষ্যে Cosmos আমাদের রোগীদের পুষ্টি ডায়েটের বিষয়ে বিশেষ নজর দিচ্ছেন যাতে করে রোগীরা সম্পূর্ণরূপে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরে যেতে পারে”- তিনি আরও বলেন।

দূরপ্রাচ্যে উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা (পর্ব ২) – জাপানে বাংলাদেশি নারী গবেষকদের সুযোগ ও সম্ভাবনা

২৫ জুলাই, শনিবার – জাপান : রাত ১০.৩০ | বাংলাদেশ সময় : সন্ধ্যা ৭.৩০ টা সঞ্চালনায় : ড. নবীউল ইসলাম রবিন, সহকারী অধ্যাপক (নিউরোসায়েন্স), ইয়ামাগুচি বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বয় :ওমর ফারুক হিমেল আলোচক : ড. হুসনা আরা নাজনীন, পোস্ট ডক্টরাল গবেষক, গিফু বিশ্ববিদ্যালয়ড. শারমিন আকতার, পোস্ট ডক্টরাল গবেষক, ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয়সালমা আল-আমিরাহ, মাস্টার্স শিক্ষার্থী, ওয়াসেদা বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান

Posted by AkashJatra on Saturday, July 25, 2020

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...