অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ লেডিস ক্লাবের আত্মপ্রকাশ

0

‘নারীর ক্ষমতায়ন, বৈচিত্র্য, মর্যাদা ও সম্মান’—এ স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশি নারীদের মর্যাদাপূর্ণ নিজস্ব পরিচয় তুলে ধরার প্রয়াস নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় যাত্রা শুরু করল নতুন সংগঠন ‘বাংলাদেশ লেডিস ক্লাব অস্ট্রেলিয়া’।

গত ১৩ নভেম্বর সন্ধ্যায় সিডনির মিন্টোতে বিডি হাব কমিউনিটি হলে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু করে সংগঠনটি। রাহেলা আরেফিনকে প্রেসিডেন্ট এবং শিরিন আক্তার মুন্নিকে জেনারেল সেক্রেটারি করে ক্লাবের প্রথম কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ডা. শায়লা ইসলাম, ভাইস প্রেসিডেন্ট শামীমা আলমগীর, ট্রেজারার তাবাসুম জলিল চৌধুরী, অর্গানাইজিং সেক্রেটারি শাহানা চৌধুরী, মিডিয়া এন্ড কালচারাল সেক্রেটারি আবিদা আস্বাদ, উইমেন্স অ্যাফেয়ার্স সেক্রেটারি নুসরাত জাহান স্মৃতি,ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সেক্রেটারি নায়লা রহমান, পাবলিকেশন সেক্রেটারি কানিতা আহমেদ।

এক্সিকিউটিভ মেম্বারদের মধ্যে রয়েছেন ফাহিমা সাত্তার, ফারজানা আহমেদ, সাবরিনা হোসাইন, মাহিরা পারভীন, সঞ্চিতা মতিন, ইলোরা খান, নাজনীন খন্দকার, অমিয়া মতিন, সারিনা শারমিন, তাহসিন আক্তার, কামরুন নাহার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশ লেডিস ক্লাবের লক্ষ হল নারীর ক্ষমতায়ন ও মর্যাদা নিয়ে আধুনিক ও সৃজনশীল কর্মকাণ্ড পরিচালনা। প্রবাসী কর্মব্যস্ত নারীদের নিজের স্বাধীনতা উদ্‌যাপনের এই সংগঠনটি প্রবাসে নারীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে একত্রে কাজ করবে।

একই সঙ্গে প্রবাসে পারিবারিক কলহে নির্যাতিত নারীদেরও সহযোগিতা করবে সংগঠনটি। অস্ট্রেলিয়ায় আসা নতুন তরুণীদের আবাসন ও কর্মসংস্থান পেতেও সাহায্য করবে এ সংগঠন।

সিডনিতে যাত্রা শুরু করলেও অস্ট্রেলিয়ার প্রতিটি রাজ্যে সংগঠনটির শাখা এবং প্রতিনিধি থাকবে বলেও জানায় সংগঠনটি।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ প্রেস এন্ড মিডিয়া ক্লাবের প্রেসিডেন্ট রহমত উল্লাহ, জন্মভূমি বেতারের সিইও এবং জন্মভূমি টেলিভিশনের ডিরেক্টর সৈয়দ আকরাম উল্লাহ, জন্মভূমি টেলিভিশনের ডিরেক্টর (নিউজ) নাইম আব্দুল্লাহ, টেলিঅজের সিইও ইঞ্জিনিয়ার জাহাঙ্গীর আলম, নৃত্যশিল্পী অর্পিতা সোম, বাংলা পাঠশালার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মিলি ইসলাম, শ্রেয়সী দাস প্রমুখ।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন