অকালে চলে গেলেন লেবাননপ্রবাসী রেমিট্যান্সযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন

0

বয়স সবে ৩৫ বছর পেরিয়েছে। জীবনের তাগিদে, জীবন সাজাতে ৮ বছর আগে প্রবাসী হয়েছিলেন লেবাননে। জীবন আগানোর ব্যবস্থাও হয়েছিল ধনকুবে মালিকের ঘরে। স্বপ্ন বুনতে ছিলেন নিজের স্বচ্ছল আগামীকে নিয়ে, পরিবারকে নিয়ে। কিন্তু স্বপ্ন ধরার আগেই না ফেরার দেশে চলে গেলেন লেবাননপ্রবাসী এই যুবক রেমিট্যান্সযোদ্ধা।

বুধবার (২৩ অক্টোবর) সকালে লেবাননে সাঈদা জেলায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রবাসী বাংলাদেশি রেমিট্যান্সযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন (৩৫) মারা যান। তাঁর মরদেহ বর্তমানে স্থানীয় আসির হাসপাতালের হিমঘরে আছে।

বাংলাদেশে সিলেট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষীপাশা গ্রামের ইস্কান্দর আলীর ছেলে ফরিদ উদ্দিনের দেশে স্ত্রী ও তিন জন সন্তান রয়েছে।

মরহুমের বড় ভাই লেবাননপ্রবাসী শমসেদ উদ্দিনর জানায়, ২০১১ সালে ফরিদ উদ্দিন পরিবারে স্বচ্ছলতা আনার আশায় লেবানন আসেন। এক ধনকুবে লেবানিজ মালিকের বাংলোর কেয়ারটেকার চাকরি করতেন। বিগত কয়েক মাস থেকেই তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন।

বুধবার সকালে কর্মরত অবস্থায় হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে যান তিনি। সাথে সাথে তার লেবানিজ মালিক স্থানীয় আসির হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে এক ঘন্টা পরই মারা যান ফরিদ উদ্দিন । মস্তিষ্কে স্ট্রোক করার কারনে তিনি মারা যান বলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান ।

তাঁর অকাল মৃত্যুতে পরিবারসহ লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। মরদেহ দেশে দ্রুত পাঠাতে বৈরুতস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতা কামনা করেছেন মরহুমের বড়ভাই।

[প্রিয় পাঠক, আকাশযাত্রা প্রবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিকসহ কমিউনিটির নানান খবর, সংগঠনের খবর, ভ্রমণ, আড্ডা,আনন্দ-বেদনার গল্প, ছোট ছোট অনুভূতি, দেশের স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। লেখা ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়]

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Loading...